শুধু স্বাস্হ্য রক্ষায় নয়, ত্বক পরিচর্চাতেও কাজে লাগে গ্রিন টি! জেনে নিন কীভাবে ব্যবহার করবেন…

শরীরকে ভিতর থেকে মজবুত করতে গ্রিন টি-র উপকারিতার কথা অনেকেই জানেন। গ্রিন টি ত্বকচর্চার কাজেও একই রকম সাবলীল। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট, অ্যান্টি ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিমাইক্রোবায়াল উপাদান ত্বকের (skin) সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সহায়ক। বিশেষত যাঁদের সেনসেটিভ ত্বক তাঁদের ক্ষেত্রে গ্রিন টি রূপচর্চার অন্যতম উপাদান। যে কোনও ত্বকের ক্ষেত্রেই বলিরেখা রোধ করে। আর কোন কোন ভাবে গ্রিন টি আপনার ত্বকের জন্য উপকারী তা নিয়েই এই প্রতিবেদনে আলোচনা করার চেষ্টা করব আমরা।

১) চা খাওয়া হয়ে গেলে গ্রিন টি ব্যাগগুলি ফেলে দেবেন না। গোলাপ জলে ডুবিয়ে ফ্রিজে রেখে ঠাণ্ডা করে নিন। এরপর চোখ বন্ধ করে ওই টি ব্যাগগুলি চোখের উপর ১৫ মিনিট রেখে দিন। সমস্ত ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে। মাসল রিল্যাক্স হবে। চোখের তলার ঘন কালো দাগও এই গ্রিন টি ব্যাগ ব্যবহার করলে ধীরে ধীরে দূর হয়ে যাবে।

২) গ্রিন টি ব্যাগ আপনার ত্বকের স্ক্রাব হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। টি ব্যাগটি কেটে চা পাতাগুলো বের করে নিতে হবে। এর সঙ্গে এক চা চামচ ওটস পাউডার, এক চা চামচ মধু, অর্ধেক চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। কেউ চাইলে এই মিশ্রণের সঙ্গে পছন্দের এসেনশিয়াল অয়েলও কয়েক ফোঁটা যোগ করতে পারেন। তিন ফোঁটা করে রোজমেরি এবং টিট্রি অয়েল মিশিয়ে নিলে ভাল ফল পাবেন। এবার এই মিশ্রণ মুখে এবং সারা গায়েও লাগাতে পারেন। ত্বকের মরা কোষ উঠে যাবে। ত্বক হবে উজ্জ্বল। বিশেষত গরমকালে এই স্ক্রাবার যে কোনও ত্বকের জন্য ভাল।

আরও পড়ুন: করোনার কারণে পার্লার যেতে ভয় পাচ্ছেন? রইল বাড়িতে ফেসিয়াল করার পদ্ধতি…

৩) গ্রিন টি ব্যাগ দিয়ে ফেস মাস্কও তৈরি করতে পারেন। ব্যবহার করা দুটো টি ব্যাগ থেকে কেটে চা পাতা বের করে নিন। হালকা ভিজে থাকা সেই চা পাতার সঙ্গে এক চা চামচ মুলতানি মাটি, এক চা চামচ কমলালেবুর খোসার গুঁড়ো মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। মুখে এবং গলায় এই মিশ্রণ মাস্ক হিসেবে লাগাতে পারেন। অন্তত ১০ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর ভাল করে শুকিয়ে গেলে সাধারণ জল দিয়ে ধুয়ে নিন। এরপর অবশ্যই ময়শ্চারাইজার লাগাবেন।

৪) গ্রিন টি ব্যাগ থেকে আপনার ত্বকের জন্য দারুণ টোনারও তৈরি করতে পারেন। অন্তত পাঁচটা ব্যবহত টি ব্যাগ একটি পাত্রে জমিয়ে রাখুন। এর থেকে কিছুটা জল বেরবেই। এর সঙ্গে ব্যবহৃত দুটি লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এক চা চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার, পাঁচ ফোটা টিট্রি বা রোজমেরি অয়েল মিশিয়ে নিন। আট থেকে দশ ঘণ্টা রেখে দেওয়ার পর একটি বোতলে ভরে ফেলুন এই তরল মিশ্রণ। এবার টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। ফ্রিজে রেখে একাধিকবার ব্যবহার করতে পারবেন এই টোনার। মনে রাখবেন, এই টোনার ব্যবহার করার অর্থ আপনি সম্পূর্ণ ভাবে প্রকৃতিকে ব্যবহার করে ত্বক পরিচর্চা করছেন।

আরও পড়ুন: সকালবেলার এই কয়েকটি অভ্যেস বাড়িয়ে দেবে আপনার ত্বকের জেল্লা, ট্রাই করে দেখতে পারেন…