৮৫-এর বদলা ৩৮, আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে মানরক্ষা বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের

নিউজ কর্নার ওয়েব ডেস্ক: বিশ্বজয়ী ইংল্যান্ডকে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৮৫ রানে গুটিয়ে দিয়ে গোটা দুনিয়াকে চমকে দিয়েছিলেন আইরিশরা। অনেকেই ধরে নিয়েছিলেন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরই হয়তো পচা শামুকে পা কাটবে ইংল্যান্ডের। দিন দশেক আগে ইতিহাসের সাক্ষী থাকা লর্ডসেই ঘটবে অঘটন। কিন্তু তেমনটা হল না। ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের ত্রাস হয়ে ওঠা সেই আয়ারল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস শেষ করল মাত্র ৩৮ রানে। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। ৩৮ রানেই আইরিশ ইনিংস গুটিয়ে দিয়ে ১৪৩ রানে জয় পকেটে পুরলেন জো রুটরা।

সবাইকে অবাক করে বিশ্বকাপ জয়ী দলকে প্রথম ইনিংসে মাত্র ৮৫ রানে অলআউট করে দিয়েছিল আয়ারল্যান্ড। যাকে ঘিরে শোরগোল পড়ে যায় বিশ্ব ক্রিকেটে। এরপর আবার ১২২ রানে এগিয়ে যাওয়ায় ম্যাচটিকে ঘিরে কৌতূহল বাড়তে থাকে ক্রিকেটপ্রেমীদের মধ্যে।জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসেও খুব একটা ভালো ব্যাট করতে পারেনি রুটবাহিনী। জ্যাক লিচের ৯২ এবং জেসন রয়ের ৭২ সত্ত্বেও ৩০৩-এর বেশি করতে পারেনি ইংল্যান্ড। ফলে লর্ডসে জেতার জন্য ১৮২ রান করতে হত আয়ারল্যান্ডকে।

স্যাঁতস্যাঁতে বোলিং সহায়ক আবহাওয়া ছিল। সেটাকেই কাজে লাগিয়ে দিল ইংল্যান্ডের দুই পেসার ক্রিস ওক্স ও স্টুয়ার্ট ব্রড। প্রথম দিন ১৩ রানে পাঁচ উইকেট নিয়ে ইংল্যান্ড শিবিরে থরহরিকম্প ধরিয়ে দিয়েছিলেন টিম মার্টাগ। এ দিন তার পালটা দিলেন ওক্স। মাত্র ১৭ রানে ছ’উইকেট তুলে নিলেন তিনি। চার উইকেট বাগালেন ব্রড।

সদ্য বিশ্বকাপ জয়ী দলের বিশ্বকাপে সুযোগই না পাওয়া একটি দলের কাছে এই পরিণতি যেন কেউ মেনে নিতে পারছিলেন না।তবে অনেকেই আশা রেখেছিলেন ইংল্যান্ডের উপরই। শেষ পর্যন্ত হলও তাই। দ্বিতীয় ইনিংসে ৯২ রান করে ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন ইংল্যান্ডের ওপেনার জ্যাক লিচ। তাঁর সঙ্গে জেসন রয়ের ১৪৫ রানের পার্টনারশিপই এই ম্যাচ জয়ের অন্যতম কারণ বলেই মনে করছে বিশেষজ্ঞরা।

লর্ডসে টেস্ট জেতার অসম্ভব একটা স্বপ্ন আপাতত অধরাই থেকে গেল আয়ারল্যান্ডের।অথচ এই টেস্টে প্রায় অর্ধেকেরও বেশি সময় ধরে দাপট ছিল আইরিশদের। শুধুমাত্র তৃতীয় দিনের একটা সেশনেই তাদের যাবতীয় স্বপ্নকে চুরমার করে দিয়ে গেল। তবে শেষ রক্ষা হলেও ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের এই পারফরম্যান্সের জন্য সিঁদুরে মেঘ দেখতে শুরু করেছেন অনেকে। কারণ অগস্টের প্রথম সপ্তাহেই অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে শুরু হতে চলেছে ঐতিহ্যশালী অ্যাসেজ। অ্যাসেজে ভাল পারফর্ম করাই এখন ক্রিকেটের দুই জায়ান্ট ইংল্যান্ড এবং অস্ট্রেলিয়ারের এক মাত্র লক্ষ্য। তার আগে প্র্যাক্টিস ম্যাচ মনে করে আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে খেলা এই একটি মাত্র টেস্টে দলের এই হাল দেখে  যথেষ্টই চিন্তিত ইংল্যান্ড ক্রিকেট।