চোটগ্রস্ত অবস্থায় অস্ট্রেলিয়ার দাপুটে মনোভাবে ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু মাত্র তিন রানের শতরান ফস্কালেন ঋষভ পন্ত। তাতেও অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নয়া নজির তৈরি থেকে তরুণ ব্যাটসম্যানকে আটকাতে পারল না অস্ট্রেলিয়া। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান হিসেবে অস্ট্রেলিয়ায় টেস্টে এশিয়ানদের মধ্যে সর্বোচ্চ রানের মালিক হলেন। ছাপিয়ে গেলেন সৈয়দ কিরমানিকে। তাও প্রায় অর্ধেক সংখ্যক টেস্টেই।

ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে, Live by the sword, die by it। অর্থাৎ, রাজার মতো বাঁচো এবং রাজার মতোই মৃত্যুবরণ করো। আজ ঋষভ পান্থের ইনিংসটা অনেকটা সেইরকমই ছিল। পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে, তিনি কার্যত ধামাকা করলেন। ১১৮ বলে করলেন ৯৭ রান। আজ তিনি একডজন বাউন্ডারি এবং তিনটে ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। অবশেষে ৭৯.১ ওভারে নাথান লিয়নের বলে চালাতে গিয়ে গালিতে প্যাট কামিন্সের হাতে তিনি ক্যাচ তুলে ফিরে এলেন। সিডনির এই ইনিংসে তিনি শতরান করতে না পারলেও কেরিয়ারের অন্যতম একটা মাইলফলক হয়ে থাকবে।

শতরান মিস করলেও পান্থের এই প্রশংসা করছে গোটা ক্রিকেট বিশ্ব। কারণ একটাই। সিডনি টেস্টের চতুর্থ দিনেও ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকেরা নিশ্চিত ছিলেন না যে ঋষভ পান্থ দ্বিতীয় ইনিংসে কতটা ব্যাটিং করতে পারবেন। কারণ প্রথম ইনিংসে ব্যাট করার সময় তিনি বাঁ হাতের কনুইয়ে চোট পেয়েছিলেন। যন্ত্রণা এতটাই হচ্ছিল যে তাঁকে হাসপাতালেও নিয়ে যেতে হয়। যদিও চিকিৎসকেরা জানান, তাঁর চোট খুব একটা গুরুতর নয়। অন্তিম দিনে তিনি ব্যাট করতে পারবেন। কিন্তু, তা বলে এমন বিধ্বংসী মেজাজে! সেটা বোধহয় কেউ কল্পনাও করতে পারেননি।

আরও পড়ুন: টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম মহিলা আম্পায়ার, সিডনিতে নয়া নজির

পান্থের এমন বিধ্বংসী ইনিংসের প্রশংসা করেছেন অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক রিকি পন্টিং। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, “আমি যতটা আশা করেছিলাম যে টেস্টের পঞ্চম দিনে উইকেটের অবস্থা কিছুটা হলেও হয়ত খারাপ হবে, কিন্তু, সেটা একেবারেই হয়নি। যেভাবে ঋষভ পান্থ আজ খেলল, তাতে ও দেখিয়ে দিল যে এই পরিস্থিতিতে কীভাবে ব্যাট করতে হয়।”

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, ভারতকে জিততে হলে ১৮ ওভারে করতে হবে ১০৮ রান। হাতে আছে ৫ উইকেট। অদম্য মনোভাব নিয়ে লড়ে যাচ্ছেন অশ্বিন এবং বিহারী। অস্ট্রেলীয় পেসাররা যত ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছেন তত ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দৃঢ়তা বাড়ছে। কামিন্সের বল অশ্বিনের বুকে লাগে। তাতেও ভয় পাননি। উইকেটকিপার টিম পেনের ক্রমাগত স্লেজিও তাঁদের মনঃসংযোগ টলাতে পারছে না।

আরও পড়ুন: সৌরভ নন, এবার ICC-তে বোর্ডের প্রতিনিধি জয় শাহ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *