সঙ্গে হিসেব বহির্ভূত সোনা, মুম্বই বিমানবন্দরে আটক দুবাই ফেরত ক্রুণাল‌ পাণ্ডিয়া

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের (Mumbai Indians) হয়ে IPL চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন মাত্র দু’দিন আগে। কিন্তু আমিরশাহি থেকে ফেরার সময় ভাল বিড়ম্বনার মুখে পড়তে হল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের অলরাউন্ডার ক্রুণাল পান্ডিয়াকে (Krunal Pandya), যিনি আবার হার্দিক পান্ডিয়ার দাদাও। নিয়ম ভেঙে বাড়তি সোনা নিয়ে দুবাই থেকে দেশে ফেরায় তাঁকে আটক করেছেন ডিআরআই আধিকারিকরা।

ডিরেক্টরেট অব রেভিনিউ ইনটেলিজেন্সের (ডিআরআই) আধিকারিকরা তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে । ডিআরআই সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্রুনালের কাছ থেকে পাওয়া গিয়েছে প্রচুর সোনা এবং দামী জিনিসপত্র। সেই সব জিনিসের বৈধ ক্রয়পত্র দেখতে চাওয়া হয় তাঁর কাছে।

আরও পড়ুন : বিধায়ক পদ থেকে আচমকা পদত্যাগপত্র দিতেই তৃণমূল ভবনে ডাক পড়ল বেচারাম মান্নার

নিয়ম অনুযায়ী, দুবাই থেকে ভারতে আসা পুরুষ যাত্রীরা ২০ গ্রাম সোনা বহন করতে পারেন। যার মূল্য কোনও ভাবেই পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশি যেন না  হয়। অন্য দিকে, দুবাই থেকে ভারতে আসা মহিলা যাত্রীরা ৪০ গ্রাম পর্যন্ত সোনা বহন করতে পারেন। যার মূল্য কোনও ভাবেই এক লক্ষ টাকার বেশি হবে না।

গোটা মুম্বই ইন্ডিয়ান্স টিমের সঙ্গেই দেশে ফিরছিলেন ক্রুণাল। কিন্তু বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজী মহারাজ ইন্টারন্যাশনাল (‌Chhatrapati Shivaji Maharaj International Airport)‌ এয়ারপোর্টে নামতেই তাঁকে আটক করা হয়। আটক করেন শুল্ক দপ্তর বা ডিআরআইয়ের (‌Directorate of Revenue Intelligence)‌ কর্তারা।

হার্দিকের দাদার কাছে যতটা পরিমাণ সোনাদানা এবং অন্যান্য মূল্যবান সামগ্রী ছিল, তা অনুমতিযোগ্য পরিমাণের চেয়ে বেশি। অর্থাৎ, যতটা পরিমাণ সোনা এবং অন্যান্য মূল্যবান দ্রব্য ক্রুণালের কাছে থাকার কথা, তার থেকে অনেকটাই বেশি ছিল। এরপরই তাঁকে আলাদা করে জেরা করতে শুরু করেন আধিকারিকরা। কোথা থেকে ওই সোনা এবং সামগ্রী কিনেছেন সে ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয় ক্রিকেটারকে।

আরও পড়ুন : প্রশিক্ষণ ছাড়াই প্লেন ওড়াল তিতলি! তুমুল ট্রোলড সিরিয়ালের প্রোমো