কলকাতা পুলিশের কোয়ারেন্টাইন সেন্টার এবার ইডেন গার্ডেন্স

বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় শুরুতেই রাজ্য সরকারকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন, প্রয়োজনে ইডেন গার্ডেন্সকে অস্থায়ী কোয়ারেন্টাইন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার করার। এতদিন তার প্রয়োজন না পড়লেও এবার কলকাতা পুলিশের তরফে সিএবির কাছ থেকে সাময়িকভাবে চেয়ে নেওয়া হল ইডেনের গ্যালারি। পুলিশ কর্মীদের জন্য তড়িঘড়ি সেখানে গড়ে উঠতে চলেছে অস্থায়ী কোয়ারেন্টাইন সেন্টার।

শুক্রবার কলকাতা পুলিশের সদর দফতরে সিএবির ঊর্ধ্বতন কর্তাদের সঙ্গে দীর্ঘ বৈঠক শেষে ইডেন গার্ডেন্স পরিদর্শনেও যান পুলিশ কর্তারা। ইডেন পরিদর্শনের সময় তাঁদের সঙ্গে ছিলেন সিএবির সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া এবং সম্মানীয় সম্পাদক স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়। ইডেন পরিদর্শনের পর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে আপাতত ই, এফ, জি এবং এইচ ব্লকের গ্যালারিগুলোর নিচের অংশই কোয়ারান্টাইন সেন্টার হিসাবে ব্যবহৃত হবে। যদি আরও জায়গার প্রয়োজন হয়, তবে জে ব্লকটিও ব্যবহার করা যেতে পারে। একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে এই এলাকাগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা একেবারে আলাদা করা হবে।

আরও পড়ুন : আট লক্ষ ছাড়াল দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

এবিষয়ে সিএবি সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া বলেন, “এই সঙ্কটের সময় সরকার ও পুলিশের পাশে দাঁড়ানোই আমাদের কর্তব্য। শুধুমাত্র যেসমস্ত পুলিশ কর্মী করোনায় আক্রান্ত, তাঁদের জন্যই এখানে কোয়ারান্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইডেনের চারটি গ্যালারির নিচে হবে ওই কোয়রান্টাইন সেন্টার। আপাতত ই, এফ, জি, এইচ খুলে দেওয়া হচ্ছে কোয়ারান্টাইন সেন্টারের জন্য। কলকাতা পুলিশের প্রয়োজনে জে ব্লকও দেওয়া হবে। কিন্তু এই ব্লকগুলোর সঙ্গে আমাদের প্রশাসনিক ভবনের কোনও যোগাযোগ থাকবে না। কলকাতা পুলিশের সঙ্গে আলোচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, অফিস ও সংলগ্ন গ্যালারির সঙ্গে যেন কোনও রকম যোগাযোগ না থাকে এই কোয়ারান্টাইন সেন্টারের।”

আরও পড়ুন : আজানের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে অর্জুন সিং,মামলার হুমকি আরএসএসের শাখা সংগঠনের