Euro Cup 2020: ম্যাচে জয়ী ফিনল্যান্ড,হাসপাতালে স্থিতিশীল ডেনমার্কের এরিকসন,

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ঘণ্টাখানেকের উৎকণ্ঠার পর অবশেষে মিলল খুশির খবর। জ্ঞান ফিরল ডেনমার্কের (Denmark) ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসনের। তাঁর অবস্থা আগের তুলনায় স্থিতিশীল। আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন তিনি। উয়েফার (UEFA) তরফ থেকে টুইট করে এই খবর জানানো হল। আর এই খবরে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন ফুটবলপ্রেমিরাও। যদিও ম্যাচে তাঁর দল ০-১ গোলে হেরে গেল ফিনল্যান্ডের কাছে।

আরও পড়ুন : EURO 2020: লুকাকুর জোড়া গোলে রাশিয়াকে পর্যদুস্ত করে টুর্নামেন্ট শুরু বেলজিয়ামের

ফিনল্যান্ডের বিরুদ্ধে ডেনমার্কের গ্রুপ-বি’র প্রথম ম্যাচ তখন প্রথমার্ধের ৪০ মিনিট ছুঁয়েছে। হঠাৎ করেই দৌড়াতে দৌড়াতে ফিনল্যান্ডের ৩০ গজের বক্স পেরনোর পরেই মাঠেই পড়ে যান এরিকসেন। সেই সময় তাঁর আশেপাশে তাঁর দল বা ফিনল্যান্ডের কোনও ফুটবলার ছিলেন না।

সঙ্গে সঙ্গে রেফারি-সহ ফুটবলাররা চলে আসেন তাঁর কাছে। মেডিক্যাল টিমের সদস্যরা দৌড়ে আসেন। মাঠেই তাঁর চেস্ট পাম্প করা হয়‌। মুখে মুখ লাগিয়ে এয়ার সাকশান করা হয়। তাঁকে ঘিরে রাখেন তাঁর সতীর্থরা। তারপরেই তাকে সেখান থেকে স্ট্রেচারে করে তুলে নিয়ে গিয়ে হাসপাতালের উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর বেশি মেডিক্যাল কোনও আপডেট এরিকসন সম্বন্ধে জানা যায়নি। ঘটনার মিনিট ১৫’র মাথায় ম্যাচ কমিশনার মাঠে এসে পুরো পরিস্থিতির খতিয়ে দেখে মেডিক্যাল এমার্জেন্সির কারণে খেলা বন্ধ করে দেন‌।

শেষপর্যন্ত বেশ কিছুক্ষণ পরে ফের খেলা শুরু হয়। দু’দেশের সমর্থকরাই হাততালি দিয়ে খেলোয়াড়দের সমর্থন জানান। যদিও শেষে ম্যাচ হেরেই মাঠ ছাড়তে হয় ডেনমার্ককে। ৫৯ মিনিটে দুরন্ত হেডে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন ফিনল্যান্ডের জোয়েল পোঝানপালো। গড়লেন ইতিহাসও। কারণ এটিই ফিনল্যান্ডের বড় কোনও টুর্নামেন্টে প্রথম গোল। যদিও এই ইতিহাস গড়েও কোনওরকম উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেননি। এরপর ডেনমার্ক চেষ্টা করেও সেই গোল শোধ করতে পারেনি। পেনাল্টি পেলেও স্পটকিক ফসকান ডেনমার্কের পিয়ের এমিল। যদিও এই ম্যাচে ফিনল্যান্ড নয়, বলতে গেলে শেষপর্যন্ত জিতল ফুটবলই। কারণ এরিকসনের অসুস্থতার খবরে গোটা বিশ্বেই আলোড়ন পড়ে গিয়েছিল। প্রাক্তন,বর্তমান ফুটবলাররা ছাড়াও বিশ্বের তামাম ফুটবল ভক্তরাও এরিকসনের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছিলেন সেসময়। শেষপর্যন্ত উয়েফার পক্ষ থেকেই জানানো হয়, আপাতত সুস্থ ক্রিশ্চিয়ান এরিকসন।

আরও পড়ুন : এরিকসেন, মেডিক্যাল এমার্জেন্সিতে বন্ধ ইউরো কাপের ম্যাচ

 

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest