ঘরের মাঠে কলঙ্কের হার ইন্ডিয়ার, সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড

২০১৭ সালের মার্চ মাসের পর ঘরের মাঠে টেস্ট হারল ভারতীয় দল।

হুড়মুড়িয়ে ১৯২ রানে খতম হয়ে গেল ভারতীয় ইনিংস। চেন্নাইয়ে সাড়ে চার দিন ম্যাচ শেষ করে সিরিজে ১-০ এগিয়ে গেল ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ডের জয় এল ২২৭ রানের ব্যবধানে। ঘরের মাঠে লজ্জার হার হজম করতে হল ভারতকে।

একপ্রান্ত আগলে রেখে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন কোহলি । তবে বেন স্টোকসের বলে ৭২ রানে আউট হতেই ভারতীয় ইনিংসের কফিনে শেষ পেরেক পড়ে। শুভমান গিলের সঙ্গে ভারতীয় ইনিংসের দ্বিতীয় হাফসেঞ্চুরিয়ান তিনি। চতুর্থ দিনের শেষে রোহিত শর্মাকে হারানোর পর ভারত এদিন লাঞ্চের আগে আরো পাঁচ উইকেট হারায়। ক্রিজে ব্যাটিং করছিলেন বিরাট কোহলি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন।

লাঞ্চের পরেই অশ্বিন আউট হয়ে যান। তখনই খেলা যেন নিয়মরক্ষার হয়ে পড়েছিল। তারপর কোহলি ফিরতেই খেল খতম।এদিন ভারতীয় ইনিংসের ভাঙন শুরু করেন জেমস আন্ডারসন। শুভমান গিল, অজিঙ্কা রাহানে, ঋষভ পন্থকে ফেরালেন তিনি। তারপর টেলএন্ডারদের ভাঙেন লিচ এবং বেস। প্রথম ইনিংসে ডম বেস দুরন্ত বোলিং করার পরে দ্বিতীয় ইনিংসে ঘূর্ণি পিচে জ্বলে উঠলেন জ্যাক লিচ। ৪ শিকার তাঁর সংগ্রহে।

আরও পড়ুন: কতজনকে নেওয়া হবে? কোন দেশের কতজন ক্রিকেটার আগ্রহী? জেনে নিন IPL 2021 auction -এর ৭ তথ্য

গতকাল ভারত ১ উইকেট খুইয়ে ৩৯ তুলে ফেলেছিল। ক্রিজে ছিলেন সেট হয়ে যাওয়া শুভমান গিল এবং চেতেশ্বর পূজারা। ভাবা হয়েছিল দুজনে ক্রিজে কিছুটা সময় কাটিয়ে দিতে পারলেই ম্যাচ বাঁচানো সহজ হবে ভারতের। তবে এদিন শুরুতেই লিচের বলে স্টোকসের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন পূজারা (১৫)।

তারপর গিল-কোহলি পার্টনারশিপ জমে গিয়েছিল। তবে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করার পরেই গিলকে বোল্ড করে দেন আন্ডারসন। সেই ওভারেই ইংরেজ তারকা পেসার ফেরান অজিঙ্কা রাহানেকে (০)। সেই স্পেলেই আন্ডারসন তুলে নেন ঋষভ পন্থকেও (১১)। সেখানেই যেন কার্যত নিশ্চিত হয়ে যায় ভারতের হার। সবমিলিয়ে ভারতীয় ইনিংসে তিনজন রানের খাতা খোলার আগেই আউট হয়ে যান।

আরও পড়ুন: ‘নো ফার্মাস, নো ফুড’, কৃষক আন্দোলনের পাশে দাঁড়ালেন জোড়া গোলের নায়ক মনবীর