IPL 2021: আরসিবির হয়ে জ্বলে উঠলেন বাংলার শাহবাজ, তীরে এসে তরী ডোবাল হায়দরাবাদ

শাহবাজের দেওয়া এই ধাক্কা হায়দরাবাদ আর সামলে উঠতে পারেনি।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

একেই বলে তীরে এসে তরী ডোবা। মঙ্গলবার মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে কেকেআর যা করেছিল, ঠিক তারই পুনরাবৃত্তি হল বুধবারও। একই মাঠে – চেন্নাই। ১৬ ওভার পর্যন্ত বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে থেকেই শেষমেশ হেরে গেল হায়দরাবাদ। আর আরসিবির এই জয়ে মুখ্য ভূমিকা পালন করলেন বাংলার স্পিনার শাহবাজ আহমেদ। একটা ওভারে মাত্র এক রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে চমক দিলেন তিনি।

চেন্নাইয়ের পিচ ধীরে ধীরে স্লো হয়ে আসছে, আর তার ফল ভুগতে হচ্ছে ব্যাটিং টিমগুলোকে। মঙ্গলবারই দেখা গিয়েছিল যে মুম্বই বা কেকেআর কেউই ভালো রান করতে পারেনি। এ দিন বেঙ্গালুরুর তুলনামূলক মন্থর ব্যাটিং দেখে পিচকেই দোষারোপ করতে হয়।

প্রথমে ব্যাটিং করে ১৪৯ রান করেছিল আরসিবি। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৫৯ রানের ইনিংস না খেললে আরসিবির ইনিংস হয়তো আরও আগে গুটিয়ে যেত।তবে খুব সুন্দর ভাবে নিজের ইনিংসটা সাজিয়েছিলেন তিনি। প্রথমে ধীরেই নিজের ইনিংস শুরু করেন ম্যাক্সি, তার পর রানের গতি বাড়ান তিনি। পিচের সুবিধা তো ছিলই, কিন্তু তার পরেও দুর্দান্ত বল করেন হায়দরাবাদের বোলাররা। বিশেষ করে জেসন হোল্ডার এবং রশিদ খান।

এই দু’জনের জাল ভেঙে ম্যাক্সওয়েল যে ভাবে নিজের ইনিংসকে টেনে নিয়ে গেলেন তা বাহবার দাবি রাখে। এর মধ্যেও অর্ধশতরান করে ফেলেন ম্যাক্সওয়েল। দীর্ঘদিন পর আইপিএলের ময়দানে হাফ সেঞ্চুরি করলেন তিনি।

আরও পড়ুন: CSK vs DC: পৃথ্বী-ধাওয়ানের দাপটে উড়ে গেল চেন্নাই

বেঙ্গালুরুর দেওয়া দেড়শো রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে প্রথমেই ধাক্কা খায় হায়দরাবাদের ব্যাটিং। ঋদ্ধিমান সাহা এ বারও ব্যাট হাতে ব্যর্থ। দ্রুত ফর্মে না ফিরলে দলে তিনি জায়গা ধরে নাও রাখতে পারেন। তবে ঋদ্ধি আউট হয়ে গেলেও ডেভিড ওয়ার্নার এবং মনীশ পাণ্ডের হাত ধরে ম্যাচে ফিরে আসেন গেরুয়া শিবির। পাণ্ডে কিছুটা ধরে খেলছিলেন এক দিকে। অন্য দিকে অনেক বেশি আগ্রাসী ছিলেন ওয়ার্নার।

আরসিবির বোলিং আক্রমণ বরাবরই অন্য দলগুলির থেকে কিছুটা দুর্বল। তবে প্রথম ম্যাচে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে সেই দুর্বলতা ঢেকে দিয়েছিলেন হর্শল পটেল, পাঁচটা উইকেট নিয়ে। কিন্তু এ দিনের ম্যাচ সেটা ক্লিক করেনি। মহম্মদ সিরাজ, কাইল জেমিসন, হর্শল পটেলরা ব্যর্থ।

আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই নিজের রানের গতি ক্রমশ বাড়িয়ে চলেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। দুরন্ত একটি অর্ধশতরান পূর্ণ করে ফেলেন তিনি। তবে ব্যক্তিগত ৫৩ রানের মাথায় তিনি যখন বাউন্ডারি লাইনের ঠিক ভেতরে ধরা পড়েন, হায়দরাবাদের জন্য ম্যাচটা ততক্ষণে অনেকটাই সহজ হয়ে এসেছে। যদিও মঙ্গলবারের ম্যাচ বুঝিয়ে দিয়েছে চেন্নাইয়ের পিচে যে কোনো মুহূর্তে ম্যাচে মোড় ঘুরে যেতে পারে।

ঠিক সেটাই হল। চার নম্বর ব্যাট করতে নামা জনি বেয়ারস্টো ব্যাটে-বলে করতেই পারছিলেন না। তবুও মনীশ পাণ্ডে যে হেতু ক্রিজে ছিলেন, হায়দরাবাদের সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু ১৭তম ওভারে ম্যাচের মোর পুরোপুরি ঘুরিয়ে দিলেন বাংলার শাহবাজ আহমেদ। ওভারের প্রথম দুই বলেই বেয়ারস্টো এবং পাণ্ডেকে ফেরান তিনি। এর পরের তিন বলে তিনি খরচ করেন মাত্র একটা রান। ওভারের শেষ বলে আব্দুল সামাদকে ফিরিয়ে বেঙ্গালুরুর হয়ে আরও একটা ঝটকা দেন শাহবাজ। ম্যাচটি ততক্ষণে বেঙ্গালুরুর কবজায় এসে গিয়েছে।

শাহবাজের দেওয়া এই ধাক্কা হায়দরাবাদ আর সামলে উঠতে পারেনি। এর পর একের পর এক উইকেট পড়তে থাকে । বাকিটা ছিল শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।

আরও পড়ুন: IPL 2021: আঙুল ভেঙে আইপিএল থেকে ছিটকে গেলেন বেন স্টোকস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest