ধোনির দলের কাছে বিরাট হার! শেষ হল RCB- র অপরাজিত থাকার দৌড়, একনম্বরে CSK

একা রবীন্দ্র জাদেজাই রক্ষে রাখলেন না বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের৷

সিএসকে: ১৯১/৪ (২০ ওভার)

আরসিবি: ১২২/৯ (২০ ওভার)

ব্যাট হাতে ঝড় তুলেছিলেন আর বল হাতে গুঁড়িয়ে দিলেন৷ একা রবীন্দ্র জাদেজাই রক্ষে রাখলেন না বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের৷ আর তাঁর দারুণ পারফরম্যান্সের সুবাদে এবারের আইপিএলে প্রথমবারের জন্য পয়েন্ট টেবলের এক নম্বরে উঠে এল চেন্নাই সুপার কিংস৷ এদিনের ম্যাচে তারা জিতল  ৬৯ রানে৷

টসে জিতে এদিন সিএসকে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নেয়। আর শুরুতেই চেন্নাইয়ে চালকের আসনে বসিয়ে দেন দুই ওপেনার ফাফ ডুপ্লেসিস (৩২ বলে ৫০) এবং ঋতুরাজ গায়কোয়াড (২৫ বলে ৩৩)। ওপেনিং জুটিতেই সিএসকে স্কোরবোর্ডে ৭৪ তুলে ফেলেছিল।

আরও পড়ুন: দু-বছরের খরা কাটিয়ে খেতাব বার্সোলানার, রেকর্ড গড়লেন মেসি

মাঝে হর্ষল প্যাটেলের দুরন্ত বোলিংয়ে প্রবলভাবে ম্যাচে ফিরে এসেছিলেন কোহলিরা। একই ওভারে হর্ষল তুলে নিয়েছিলেন ডুপ্লেসিস এবং রায়নাকে (২৪)। তারপরে এসে তুলে নেন আম্বাতি রায়ডুকেও (১৪)। ৩ উইকেট চটজলদি হারিয়ে বড় রান তোলা চ্যালেঞ্জের হয়ে উঠেছিল সিএসকের সামনে।

তবে শেষ ওভারেই ভেলকি দেখান জাদেজা। ১৯ ওভার শেষেও স্কোর ছিল ১৫৪/৪। কোহলি শেষ ওভারের বল তুলে দিয়েছিলেন দলের সবথেকে নির্ভরযোগ্য হর্ষল প্যাটেলের হাতে। যিনি আবার চলতি টুর্নামেন্টের বেগুনি টুপির মালিক।

তবে হর্ষলকে নিয়ে যে সর্বকালীন রেকর্ড গড়ে ফেলবেন জাদেজা, তা কে ভেবেছিল! প্রথম টিম বলেই ছক্কা হাঁকান জাদেজা। এর মধ্যে তৃতীয় বলটি ছিল নো বল। ফ্রি হিট মিস করেননি তারকা। সপাটে ছয় হাঁকান। চতুর্থ বল ২ রান নেন তিনি। পঞ্চম বলে লং অন দিয়ে ছক্কায় বাউন্ডারি পার করেন। শেষ বলে স্কোয়ার লেগ দিয়ে চার হাঁকান। ৩ ওভার শেষে যেখানে হর্ষল মাত্র ১৪ রান খরচ করেছিলেন। চার নম্বর ওভার শেষে তাঁর বোলিং ফিগার দাঁড়ায় ৫১।

জাদেজার ব্যাটিং তান্ডবে ১৯২ রানের টার্গেট রেখেছিল সিএসকে। সেই লক্ষ্য চেজ করতে গিয়ে কোহলি-দেবদূত পাডিক্কল খারাপ শুরু করেননি। কোহলি ৮ রানের ইনিংসে সংযত থাকলেও মারমুখী পাডিক্কল ১৫ বলে ৩৪ করে দারুন টানছিলেন। তবে বিরাট কোহলি-পাডিক্কলকে মাত্র ১০ রানের ব্যবধানে কুরান এবং শার্দুল ঠাকুর ফিরিয়ে দেওয়ার পরেই নামে ধস। ৪৯ রান আর যোগ করার ফাঁকেই হারায় ৭ উইকেট। জাদেজা-তাহিরদের দাপটে শীঘ্রই সেই স্কোর ১০৩/৯ হয়ে যায়। জাদেজা ছাড়া বল হাতে ইমরান তাহির দায়িত্ব নিয়ে বেঙ্গালুরুর লেজকে আউট করে দেন৷

১২২ রানেই শেষ কোহলির আরসিবি। সিএসকের ১৯১ রানের জবাবে আরসিবি তুলল মাত্র ১২২/৯। ধোনিদের জয় ৬৯ রানে। শেষ উইকেটে চাহাল (৮), সিরাজের (১২) ১৯ রানের অপরাজিত পার্টনারশিপ না থাকলে আরসিবিকে অলআউটের লজ্জা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হত।

আরও পড়ুন: IPL 2021: জয়ের খোঁজে খাদের ধারে দাঁড়িয়ে থাকা নাইট শিবির, প্রথম একাদশে কি রদবদল করবে কলকাতা?