KXIP vs RCB: সচিনকে টপকে ‘রেকর্ড’ সেঞ্চুরি রাহুলের, রানের পাহাড় গড়ল পাঞ্জাব

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগে দুরন্ত রেকর্ড গড়লেন লোকেশ রাহুল। দ্রুততম ভারতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে আইপিএলে ২ হাজার রান পূর্ণ করেন পঞ্জাব অধিনায়ক। এই নিরিখে তিনি টপকে যান কিংবদন্তি সচিন তেন্ডুলকরকে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে ৬টি মরশুম আইপিএল খেলা তেন্ডুলকর ৬৩টি ইনিংসে ২০০০ রানের মাইলস্টোন ছুঁয়েছিলেন। রাহুল এই কৃতিত্ব অর্জন করেন ব্যাট হাতে ৬০টি ইনিংসে মাঠে নেমে।

রাহুল ও সচিনের পরে এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছেন প্রাক্তন নাইট অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর, যিনি ৬৮টি ইনিংসে আইপিএলে ২০০০ রান করেন। সুরেশ রায়না এই মাইলস্টেন ছুঁয়েছেন ৬৯টি ইনিংসে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগে ২০০০ রান করতে বীরেন্দ্র সেহওয়াগের লেগেছে ৭০টি ইনিংস। আইপিএলের ইতিহাসে এটি রাহুলের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। আন্তর্তাকি ক্রিকেট মিলিয়ে টি-২০ ফর্ম্যাটে এই নিয়ে লোকেশের সেঞ্চুরির সংখ্যা দাঁড়াল ৪টি।উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ম্যাচে রাহুল নট-আউট থাকেন ১৩২ রানে। আইপিএলের ইতিহাসে কোনও ভারতীয় ক্রিকেটারের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস এটিই।

আরও পড়ুন: IPL 2020: প্রথম ম্যাচের দর্শক সংখ্যা গড়ল বিশ্বরেকর্ড, হার মানল ফুটবল বিশ্বকাপও

 

প্রথম ম্যাচে তাঁর ব্যাট চুপ ছিল। দলকে টেনে নিয়ে গিয়েছিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচে আগুন ঝরল রাহুলের ব্যাট থেকে। মায়াঙ্ক আউট হলেও দলকে একাই টেনে নিয়ে গেলেন তিনি। চলতি আইপিএলের প্রথম সেঞ্চুরি এল রাহুলের ব্যাট থেকে। ৬৯ বলে ১৩২ রানের দুরন্ত ইনিংস খেললেন তিনি। তাঁর ব্যাটে ভর করে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে ২০ ওভারে ৩ উইকেটে ২০৬ রান তুলল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব।

এদিন টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ব্যাঙ্গালোরের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভালই শুরু করেছিলেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল ও লোকেশ রাহুল। কিন্তু ফের সেই চাহালের ভেল্কিতে ম্যাচে ফেরে আরসিবি। ২৬ রানের মাথায় চাহালের গুগলি বুঝতে না পেরে বোল্ড হয়ে ফিরে যান মায়াঙ্ক। তিনে নামা নিকোলাস পুরান সেভাবে খেলতে না পারলেও একদিকে রাহুলের ব্যাট নির্দিষ্ট ছন্দে রান আসছিল।

৫০ করার পরে রানের গতি বাড়ালেন রাহুল। পুরান বা ম্যাক্সওয়েল কেউ তাঁর সঙ্গ দিতে পারেননি। ব্যাট হাতে ফের একবার ব্যর্থ পাঞ্জাবের এই দুই বিদেশি। এবার হয়তো সময় হয়েছে ক্রিস গেইলকে দলে ফেরানোর। তবে যেদিন রাহুলের ব্যাট চলবে, সেদিন আর বাকিদের যে খুব একটা দরকার নেই, তা আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন রাহুল।

যদিও তাঁর এই সেঞ্চুরিতে প্রত্যক্ষ হাত রয়েছে আরসিবি অধিনায়ক বিরাট কোহলির। ৮৩ ও ৯০ রানের মাথায় দু’বার রাহুলের ক্যাচ ছাড়েন তিনি। তার পরে আর থামানো যায়নি পাঞ্জাবের অধিনায়ককে। শেষ চার ওভারে ৭৪ রান তুলল পাঞ্জাব। শেষ দু’ওভারে উঠল ৫০ রান। আর তার সিংহভাগই এল রাহুলের ব্যাটে। শেষ দুই বলে দুই বিশাল ছক্কা মেরে ইনিংস শেষ করলেন তিনি।

রাহুলের ১৩২ রানের ইনিংসে ১৪টা চার ও ৭টা ছক্কা মেরেছেন তিনি। দুবাইয়ের মাঠের ভাল ব্যবহার করলেন তিনি। অথচ উল্টোপাল্টা শট খেলেননি। সবটাই ছিল ক্রিকেটীয় শট। রাহুল বুঝিয়ে দিলেন, টেকনিক ও টেম্পারমেন্ট ভাল থাকলে বড় রান সম্ভব। সে সামনে ডেল স্টেনই হোক আর নবদীপ সাইনি। পাঞ্জাবের এই রান তাড়া করে জিততে হলে অবশ্য জ্বলে উঠতে হবে বিরাটকেও।

আরও পড়ুন: KKR vs MI: রোহিত–বুমরাহর দুরন্ত পারফরম্যান্স, লজ্জার হার দিয়ে আইপিএল অভিযান শুরু নাইটদের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest