ভিভ রিচার্ডস-নিনা গুপ্তার সম্পর্ক হোক বা হালফিলের শোয়েব মালিক-সানিয়া মির্জার সম্পর্ক, সবক্ষেত্রেই ভারতীয় সুন্দরীদের রুপে একেবারে বোল্ড আউট হয়েছেন ক্রিকেটাররা। শোয়েব মালিকের পরে এবার দ্বিতীয় পাকিস্তান ক্রিকেটার হিসেবে ভারতীয় সুন্দরীদের সৌন্দর্যে মজেছেন আরেক পাকিস্তান ক্রিকেটার। বলা ভাল শোয়েবের পরে দ্বিতীয় পাকিস্তানি ক্রিকেটার হিসেবে ভারতের জামাই হলেন বর্তমান পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য তথা পেসার হাসান আলি।

ভারতীয় টেনিস সুন্দরী সানিয়া মির্জার সাথে ২০১০ সালে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন শোয়েব মালিক । তারপর প্রায় ১১ টা বছর অর্থাৎ এক দশক কেটে গিয়েছে। আপাতত মালিক দম্পতির সুখের সংসারে তাদের পুত্রসন্তানের আগমন ঘটেছে। এবার হাসান আলি বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার শামিয়া আরজুর সঙ্গে। দুবাইতে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন। করোনার কারনে বিবাহ অনুষ্ঠানে নিকট আত্মীয় ও বন্ধুরা শুধু হাজির ছিলেন। সূত্রের খবর একটি ডিনার অনুষ্ঠানে শামিয়ার সঙ্গে আলাপ হয়েছিল হাসানের।

আরও পড়ুন: কেকেআরে খেলছেন না প্যাট কামিন্স! বিশাল ধাক্কায় চুরমার নাইট শিবির

তারপর থেকেই প্রগাঢ় হয় দুজনের বন্ধুত্ব এবং সেখান থেকেই শুরু তাদের প্রেমপর্ব এবং সবশেষে পরিণয়। উত্তর ভারতের রাজ্য হরিয়ানার মেয়ে শামিয়া। বর্তমানে তাঁর পরিবার থাকে দুবাইতে। দিল্লিতে থাকেন তার বেশ কিছু আত্মীয় স্বজন। বাবা লিয়াকত আলি অবসরপ্রাপ্ত সরকারি আধিকারিক। লিয়াকতের দাদা পাকিস্তানের প্রাক্তন সাংসদ। উল্লেখ্য দাদা সর্দার তুফেলের মধ্যস্থতাতেই এই বিয়ে চূড়ান্ত হয়। প্রসঙ্গত হাসান আলির সাথে তাঁর পরিণয় ঘটলেও কিছুদিন আগেই ইনস্টাগ্রাম এক শোয়ে শামিয়া জানিয়েছিলেন ‘‌আমার প্রিয় ক্রিকেটার বিরাট কোহলি।’‌

পাকিস্তানের হয়ে এখনও পর্যন্ত ১৩ টেস্ট, ৫৪ ওয়ান ডে ও ৩৬ টি টি-২০ খেলেছেন হাসান। ২০১৭ সালে ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন হাসান আলি।

আরও পড়ুন: সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উদ্যোগে কলকাতাবাসী পাবেন ফ্রি করোনা ভ্যাকসিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *