মানুষের পাশে আফ্রিদি, মন্দিরে খাবার বিলি করলেন পাক তারকা

ইসলামাবাদ: করোনা তার দাপট দেখানোর আগে জাতি-ধর্ম-বর্ণ মানে না। তাই এমন সংকটের দিনে ধর্মের ভেদাভেদ না করেই করোনা থেকে মুক্তি পেতে প্রত্যেককে পরস্পরের পাশে দাঁড়াতে হবে। ঠিক যেমনটা করলেন শাহিদ আফ্রিদি (Shahid Afridi)। হিন্দু-মুসলিম ভেদাভেদ ভুলে মানুষ হিসেবে অভুক্তদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেন তিনি। সম্প্রতি মন্দিরে গিয়ে খাবার বিলি করেন তিনি। যার জন্য প্রাক্তন ক্রিকেটারকে কুর্নিশ জানাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া।

করোনাভাইরাসের জেরে পাকিস্তানের অবস্থা দুর্বিষহ। অনেকেই দেশের গরিব-দুঃস্থদের পাশে দাঁড়াতে এগিয়ে এসেছেন। সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন সেলিব্রিটিরাও। তবে পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার শাহিদ আফ্রিদি যা করেছেন তা নজিরবিহীন। পাকিস্তানের বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকায় ঘুরে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন তিনি। নিজের ফাউন্ডেশনের সাহায্যে শাহিদ আফ্রিদি খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন গরিবদের।

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর সমর্থনে আইএসএল খেলতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল, ফোন AIFF সভাপতিকে!

এই উদ্যোগের মধ্যেই গত ১০ মে পাকিস্তানের একটি হিন্দু মন্দিরে গিয়েছিলেন আফ্রিদি। সেখানে গিয়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন তিনি। ট্যুইটারে সেই ছবিও শেয়ার করেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার। লিখেছেন, ‘আমরা এই পরিস্থিতিতে একসঙ্গে লড়ছি। একসঙ্গেই লড়ব। এই ঐক্যই আমাদের শক্তি। শ্রী লক্ষ্মী নারায়ণ মন্দিরে গিয়েছিলাম আমরা। সেখানে প্রয়োজনে খাবার বিতরণ করা হয়েছে। আশা এখনও বেঁচে রয়েছে।’

করোনার সংকট শুরু হওয়ার পর থেকেই আফ্রিদি দেশের গরিবদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বিনামূল্যে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে চলেছে তাঁর সংস্থা।ভারতীয় প্রাক্তন ক্রিকেটার যুবরাজ সিং শাহিদ আফ্রিদির ফাউন্ডেশনে দান করেছেন। পরে জানা গিয়েছিল আফ্রিদিও পঞ্জাব ক্রিকেট ফাউন্ডেশনের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

আরও পড়ুন: আগামী বছরই ভারতে অনূর্ধ্ব-১৭ মহিলা বিশ্বকাপ, ফিফা জানিয়ে দিল দিনক্ষণ

Gmail 1