অস্ট্রেলিয়া টেস্ট সিরিজ বাঁচাতে দু’সপ্তাহের কোয়ারেন্টিনে থাকতেও রাজি টিম বিরাট!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াকে বিপুল আর্থিক ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারান্টাইনে থাকতে প্রস্তুত ভারতীয় ক্রিকেট দল। এমনটাই ইঙ্গিত দিলেন বিসিসিআইয়ের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল। 

কিন্তু করোনা পরবর্তী সময়ে এই সিরিজ হবে কিনা সেই নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই! তবে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট বোর্ড এমনকী অজি ক্রিকেটাররাও বিরাটদের এই সফরের দিকে তাকিয়ে বসে আছেন। তবে অস্ট্রেলিয়া সফরে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে রাজি বিরাটরা-এমনই ইঙ্গিত দিলেন এক বোর্ড কর্তা।

করোনা মহামারির জন্য ইতিমধ্যেই আর্থিক অনটনের মুখে পড়েছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে, বোর্ডের কার্যালয়ের কর্মী ছাঁটাইয়ের পথেও হাঁটতে হয়েছে তাদের। এই অবস্থায় ভারতের বিরুদ্ধে প্রস্তাবিত টেস্ট সিরিজ আয়োজন করে ক্ষতি সামাল দিতে চাইছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

আরও পড়ুন: স্মৃতির স্মরণী: অভিষেকের আগের দিন লর্ডসে অনুশীলনের ছবি পোস্ট করলেন মহারাজ

বছরের শেষে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে চার টেস্টের সিরিজ খেলার কথা টিম ইন্ডিয়ার। যদিও অস্ট্রেলিয়া চাইছে একটি স্টেডিয়ামেই পাঁচ টেস্টের সিরিজ আয়োজন করতে। চার টেস্ট অথবা পাঁচ টেস্ট, যাই হোক না কেন, অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে গেলে নিয়ম অনুযায়ী ১৪ দিনের কোয়ারান্টাইনে থাকতে হবে বিরাট কোহলিদের। বিসিসিআই কর্তার ইঙ্গিত সত্যি হলে সেই পথেই হাঁটতে চলেছে ভারতীয় দল।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আজই আইসিসি-র সঙ্গে টেলি কনফারেন্সে আলোচনায় বসছে অজি ক্রিকেট বোর্ড। কবে ক্রিকেট ফের অস্ট্রেলিয়ায় শুরু হবে এই নিয়ে এখনও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি তারা।  এমনিতেই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সীমান্ত সিল করে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া সরকার।তবের বোর্ডের এক কর্তার বার্তা একটু হলেও আশা জানিয়েছে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার কর্তাদের। তিনি জানান, “প্রয়োজনে দু সপ্তাহ কোয়ারেন্টিনে থাকবে  ভারতীয় দল। অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য প্রস্তুত ভারত।”

বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুন ধুমল বলেন, ” এছাড়া কোনও বিকল্প কিছু তো আমাদের হাতে নেই। ক্রিকেটকে ফেরাতে হলে এটা মেনে নিতে হবে। দু সপ্তাহ খুব বেশি দিনের লকডাউন নয়। এতে ক্রিকেটারদেরই ভালো হবে। এমনিতে এখন দেশে তারা লম্বা সময় ধরে লকডাউনের মধ্যে রয়েছে অন্য দেশে কোয়ারেন্টিনে মানিয়ে নিতে অসুবিধে হবে না।”

বিসিসিআই কোষাধ্যক্ষ অবশ্য অক্টোবরে টি-২০ বিশ্বকাপ নিয়ে আশাবাদী নন। তিনি বলেন, ‘ক্রিকেটাররা দীর্ঘদিন বাড়িতে আটকে রয়েছে। আপনি কি চাইবেন তারা পর্যাপ্ত অনুশীলন না করে সরাসরি বিশ্বকাপ খেলতে নেমে পড়ুক? কোনও বোর্ডই তা চাইবে না। সুতরাং সেই (বিশ্বকাপের) সম্ভাবনা খুবই কম।’

আরও পড়ুন: এই দুই প্রাক্তন ক্রিকেটারকে নিয়ে বিয়ার খেতে ইচ্ছা করছে! মনের কথা প্রকাশ করে বিতর্কে শাস্ত্রী

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest