খুশির জোয়ারে ভাসল চেলসি, ভাইরাল হল ড্রেসিংরুম সেলিব্রেশনের ভিডিয়ো

নয় বছর পর আবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাব জয়ের স্বাদ পেল চেলসি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ম্যান সিটিকে হারিয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্বই যেন প্রমাণ করলেন টমাস টুখেলের ছেলেরা।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নয় বছর পর আবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেতাব জয়ের স্বাদ পেল চেলসি। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন ম্যান সিটিকে হারিয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্বই যেন প্রমাণ করলেন টমাস টুখেলের ছেলেরা। এই নিয়ে তারা মোট দু’বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ঘরে তুলল। আর চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর উচ্ছ্বাসের জোয়ারে ভাসল চেলসি।

মাঠে এক প্রস্ত সেলিব্রেশনের পর ড্রেসিংরুমে ফিরে শুরু হয়ে বাঁধ ভাঙা উৎসব। নাচে-গানে উৎসবে মেতে ওঠেন চেলসির ফুটবলাররা। ম্যাচ খেলার কোনও ক্লান্তি যেন নেই। চোখেমুখে শুধুই জয়ের উচ্ছ্বাস। আনন্দে একেবারে আত্মহারা হয়ে পড়েন প্রত্যেকেই।  ইপিএল-এ চার নম্বর শেষ করার আফসোসটাও যেন আর থাকল না কাই হাভাৎসেদের।

আরও পড়ুন : মুকুটে নয়া পালক, বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ে রাজ্যে তৃতীয় স্থানে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়

চেলসি কোচ টমাস টুখেলের কৌশলের কাছে হার মানল ম্যান সিটি। ২০১২ সালের পরে নয় বছরের মাথায় দ্বিতীয়বারে মতো ইউরোপ সেরার মুকুট চেলসির। খেলার ৪২ মিনিটে কাই হাভার্জের জয়সূচক গোলে চেলসির ঘরে এসেছে ট্রফি।ম্যান সিটি এবার ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ছাড়াও লিগ ওয়ানের ট্রফি জিতেছে। বিপরীতে চেলসি লিগে হয়েছে চতুর্থ। মাঝে দলটির দায়িত্ব নিয়ে টুখেল জাদু দেখাতে থাকেন। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে দলের দায়িত্ব নিয়ে এই তরুণ কোচ বড় সাফল্য পেলেন।

ইংলিশ লিগ চ্যাম্পিয়ন ম্যান সিটিকে আগেও হারিয়েছেন। এবারও চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও তাদের জিততে দেননি, এটাই তাদের বড় প্রাপ্তি।পেপের কৌশলকে ম্লান করে শেষ হাসি হাসি বিপক্ষ কোচ টুখেলের। ম্যাচের শেষ পর্যন্ত তা ধরে রেখে ট্রফি জয়ের উল্লাসে মাতিয়েছেন সমর্থকদের।

পর্তুগালের পোর্তোর দ্রাগাও স্টেডিয়ামে দুই দলের ১২ হাজার দর্শক খেলা দেখার সুযোগ পেয়েছেন। প্রথমার্ধে বল দখলে ম্যান সিটি কিছুটা এগিয়ে থাকলেও বিরতির পরে আক্রমণে কিন্তু চেলসির আধিপত্য ছিল। টিমো ভার্নার একাধিক সুযোগ পেয়ে লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি।

১০ মিনিটে চেলসির ভার্নার বক্সের ভিতরে বল পেয়ে শট নিতে পারেননি। ৪ মিনিট পরই ভার্নারের আরও একটি শট গোলকিপার মোরালেস তালুবন্দি করেন। যদিও ম্যান সিটি ২৭ মিনিটে ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু ফোডেন ঠিকঠাক শট নিতে পারেননি। ডিফেন্ডার রুডিগার ক্লিয়ার করেন।

৩৯ মিনিটে থিয়াগো সিলভা চোটের কারণে মাঠের বাইরে চলে যান। কিন্তু তাতেও চেলসির ডিফেন্স নড়বড়ে হয়নি। বরং ৪২ মিনিট এগিয়ে যায় ব্লুজ।সেন্টার লাইন থেকে ম্যাসন মাউন্টের ডিফেন্স চেরা পাস থেকে কাই হাভার্জ আগুয়ান গোলকিপারকে দেহের দোলায় পরাস্ত করে স্বপ্নের মুহূর্ত এনে দিয়েছেন।

আরও পড়ুন : ডমিনিকা পুলিশ হেফাজতে মেহুল চোকসি,ভারত থেকে বিমান গিয়েছে , জানালেন অ্যান্টিগার প্রধানমন্ত্রী

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest