Tokyo 2020: Two athletes shared gold in the high jump!

Tokyo 2020: বন্ধু প্রীতি! হাইজাম্পে সোনা ভাগাভাগি করে নিলেন দুই অ্যাথলিট!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

টোকিও অলিম্পিক (Tokyo Olympics) এমনই এক আশ্চর্য বন্ধুত্বের ছবি তুলে ধরল। ইতালির (Italy) গিয়ানমার্কো তাম্বেরি (Gianmarco Tamberi) আর কাতারের (Qatar) মুতাজ় বারশিমের (Mutaz Barshim) কথাই জানা যেত না, যদি না হাইজাম্প (high jump) ইভেন্টটাতে নামতেন।

গত চার বছর ধরে ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ডে ঘনিষ্ঠ বন্ধু তাম্বেরি আর বারশিম। কতটা গভীর সে সম্পর্ক, সেটা জানা ছিল না। দু’জনেই সোনার জন্য লড়ছিলেন। ২.৩৯ (৭ ফুট ১০ ইঞ্চি) মিটারটা আর টপকাতে পারছিলেন না। দুটো লাফের পর হঠাত্‍ই পায়ে চোট পান বন্ধু তাম্বেরি। এতটাই যে, আর নামতেই পারছিলেন না শেষ লাফে। নিয়ম অনুযায়ী প্রতিপক্ষ না থাকায় সোনা জিতে যাওয়ার কথা ব্রাশিমেরই। ‘বন্ধুহীন’ কেউ হলে হয়তো সেই পথই বেছে নিতেন। ব্রাশিম অভিনব পথ বেছে নিলেন।

বারশিম ম্যাচ অফিসিয়ালদের গিয়ে জিজ্ঞেস করেছিলেন, ‘আচ্ছা, আমি যদি শেষ লাফ থেকে নিজেকে উইথড্র করে নিই, তা হলে কী হবে? সোনাটা কি ভাগাভাগি হতে পারে দু’জনের মধ্যে?’ ম্যাচ অফিসিয়ালরা নিয়ম খুঁজে পেতে জানালেন, হ্যাঁ, সম্ভব! বারশিম সঙ্গে সঙ্গে রাজি। যে বন্ধুর সঙ্গে তাঁর এত গভীর সম্পর্ক, তাঁর সঙ্গে সোনা ভাগাভাগি করে নিতে অসুবিধা কোথায়? বরং, তিনি নিজেও তো চান, হঠাত্‍ চোট পাওয়া বন্ধুর মনে যেন চোট না লাগে। অলিম্পিক সোনাই থাকুক দু’জনের কাছে।

আরও পড়ুন: কাশ্মীর প্রিমিয়ার লিগে খেলতে দিচ্ছে না বিসিসিআই! সৌরভদের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন গিবস

দুই বন্ধু সোনা পাওয়ার পর তাম্বেরির খুশির জোয়ার ধরার মতো ছিল না। তিনি বলেন, “বন্ধুর সঙ্গে এত সুন্দর একটা মুহূর্ত ভাগ করে নেওয়ার থেকে আনন্দের আর কী হতে পারে। এটা সত্যি জাদুর মতো।” ম্যাচের শেষে বারশিমের মুখে শোনা যায়, “আমি জানি আমি যে পারফরম্যান্স এখানে করেছি তার জন্য আমি সোনা পাওয়ার যোগ্য। কিন্তু ও (তাম্বেরি) একই কাজ করেছিল। তাই আমি এও জানি ও সোনা পাওয়ার। এটা খেলাধূলার বাইরে। এই বার্তা আমরা তরুণ প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দিলাম।”

বারশিম টুইটারে বন্ধু তাম্বেরির সঙ্গে নিজের একটি ছবি পোস্ট করে লেখেন, “একটি সোনার থেকে বেশি ভালো কী হতে পারে? দুটি।” এক অভিনব কীর্তি দেখাল টোকিও অলিম্পিক। যা চিরকাল মনে রাখবে খেলাধূলার জগত।

আরও পড়ুন: Tokyo Olympics: সোনার দৌড় শেষ মনপ্রীতদের, এ বার লড়াই ব্রোঞ্জের জন্য

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest