‘পৌষ মেলার মাঠে চলে পতিতাবৃত্তি’, বিজেপির ‘ফ্যাশন নেত্রী’ অগ্নিমিত্রার মন্তব্যে বিতর্ক

শুক্রবার বিশ্বভারতীর সেন্ট্রাল অফিসে বিজেপির মহিলা মোর্চার সভাপতি অগ্নিমিত্রা পালের সঙ্গে বৈঠক করেন স্বয়ং বিশ্বভারতীর উপাচার্য। প্রশ্ন উঠছে উপাচার্য রাজনৈতিক দলের একক প্রতিনিধির সঙ্গে এভাবে বৈঠক করতে পারে কি ? শুধু বৈঠক নয়, তারপর পৌষমেলার মাঠ পরিদর্শন করেন। মাঠ পরিদর্শনের পর মহিলা মোর্চা সভাপতির বক্তব্য , “ এই মাঠে পতিতাবৃত্তি সহ নান রকম অসামাজিক কাজকর্ম চলে। তাই এই মেলার মাঠে প্রাচীর দেওয়া প্রয়োজন।“

বিশ্বভারতীর পৌষমেলা প্রাঙ্গণে প্রাচীর বিতর্ক নিয়ে রাজ্য রাজনীতি যখন সরগরম , ঠিক সেই সময় আগুনের ঘি ঢেলে বির্তক উসকে দিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। বিশ্বভারতীর প্রাক্তণী থেকে আশ্রমিক সবার অভিযোগ বিশ্বভারতীর ইতিহাসে যা কোনদিন হয়নি তা করে দেখালেন স্বয়ং বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুত চক্রবর্তী।

আরও পড়ুন : প্রেমে মগ্ন সারা-সুশান্ত ব্যাংককে হোটেলের এক ঘরে ‘বন্দি’ ছিলেন টানা ৩ দিন! প্রতি মুহূর্তে সামনে নয়া তথ্য…

অগ্নিমিত্রা পালের এই বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিশ্বভারতীর প্রাক্তণী এবং আশ্রমিকরা জানান,” পৌষমেলার মাঠে পতিতাবৃত্তি বা অসামাজিক কাজকর্ম হয় এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। বাইরে থেকে রাজনৈতিক ব্যক্তি এসে বিশ্বভারতীর অভ্যন্তরে নাক গলিয়ে রবীন্দ্রনাথের ঐতিহ্যকে কুলষিত করছেন। মেলার মাঠের ৫০ মিটারের মধ্যে থানা, পাশে বিশ্বভারতীর সেন্ট্রাল অফিস। সেই জায়গায় এই ধরনের কাজকর্ম চলতে পারে না। আর আমরা এখানকার দীর্ঘদিনের বাসিন্দা। আমরা কোনওদিন কিছু দেখিনি।“

পাঁচিল ভাঙার ঘটনার পরই প্রধানমন্ত্রী দফতরে অভিযোগ জানিয়েছিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। তারপর বিবৃতি জারি করে অভিযোগ করা হয়, ‘‌যারা ওই মেলাপ্রাঙ্গনে অসামাজিক কাজকর্মে লিপ্ত থাকে, তারা যাতে রাতে সেখানে প্রবেশ করতে পারে, সেজন্যই পাঁচিল দেওয়ার কাজটি বন্ধ করে দিয়ে ভেঙে দেওয়া হয়েছে নির্মীয়মাণ পাঁচিল।মেলার মাঠের সামান্য একটি দোকান থেকে কখনও মদের বোতল, মেলার মাঠে ব্যবহার করা কন্ডোম, আবার কখনও গাঁজা পাওয়া যায়।’

এরপর আবার উপাচার্য বলেন, ‘রবীন্দ্রনাথ নিজে বহিরাগত ছিলেন। তিনি যদি এই অঞ্চল পছন্দ না করতেন, তবে বিশ্বভারতী এখানে বিকশিত হত না। এছাড়াও গুরুদেব, তাঁর সহকর্মীরা, যাঁরা বিশ্বভারতীকে জ্ঞান, সৃষ্টি এবং বিস্তারের কেন্দ্র হিসাবে গড়ে তোলার পথ প্রশস্ত করেছিলেন, তাঁরা সকলেই বোলপুরের বাইরে থেকে এসেছিলেন।’

আরও পড়ুন : সমলিঙ্গে প্রেম, দুই তরুণীকে সহবাসের অনুমতি দিল আদালত