কাটেনি মণীশ খুনের রেশ,তারই মাঝে আক্রান্ত শমীক ভট্টাচার্য,আঙুল কাটার চেষ্টার অভিযোগ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

টিটাগড়ের বিজেপি নেতা মণীশ শুক্ল খুনের রেশ কাটেনি। তার মধ্যেই ফের আক্রান্ত বিজেপির রাজ্য মুখপাত্র তথা প্রাক্তন বিধায়ক শমীক ভট্টাচার্য।দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারে মঙ্গলবার বড়সড় হামলার মুখে পড়লেন তিনি। বিনা প্ররোচনায় আচমকা হামলা চালানো হয়েছে বলে বিজেপি অভিযোগ করছে। শমীকের গাড়ি ভেঙে দেওয়ার পাশাপাশি লুঠপাটও চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনায় শমীক-সহ বেশ কয়েক জন জখম হয়েছেন।

বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূলের দুষ্কৃতীরাই শমীকবাবুর গাড়ির উপর এলোপাথারি ইটবৃষ্টি করেছে। অভিযোগ অস্বীকার করে শাসকদল জানিয়েছে, বিজেপির গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের কারণেই এই হামলা হয়েছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ডায়মন্ড হারবারে বিজেপির একটি সভায় যোগ দিতে যাচ্ছিলেন শমীক ভট্টাচার্য। পথে বিষ্ণুপুরের সহদেবপুরে তাঁর গাড়ি ঘিরে ধরে কয়েকজন দুষ্কৃতী।

আরও পড়ুন : বিরল এবং ভয়ঙ্কর’, হাথরস কাণ্ড নিয়ে মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের

শমীকের কথায়, ‘‘কোথাও কোনও প্ররোচনা ছিল না, কোনও গোলমালই ছিল না। আচমকা দেড়শো-পৌনে দুশো লোক লাঠি, রড, বাঁশ, ধারালো অস্ত্র নিয়ে রাস্তার উপরে উঠে এসে গাড়ি আটকাল। গাড়িটা ভেঙেচুরে দিয়ে সবাইকে নামিয়ে মারধর শুরু করল।’’

বিজেপি নিশানা করছে তৃণমূলকে। অন্যদিকে তৃণমূল সমর্থকদের দাবি সবটাই করছে বিজেপি। তারা রাজ্যে অশান্তি সৃষ্টি করতে চেষ্টা করেছে। অশান্তি না হলে যে ভোট তারা হলে পানি পাবে না তা তারা ভালোই জানে। সবটাই বিজেপির নাটক।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক গেরুয়া সমর্থক বলেন,আসলে যা করার ছিল তা বঙ্গ বিজেপি নেতারা করতে পারেনি। বহু ইস্যু ছিল। কিন্তু এরা কেবল নিজেদের ভিতরে কোন্দল করেছে। এখন সেহেত হচ্ছে ইউপি আর বাংলাকে এক করে দেখানোর। সে কারণেই এমন ঘটনা। তিনি আরও বলেন, তাছাড়া এমনিতেই মণীশ খুনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপি অভিযোগ করছে। জল এখনও ঠান্ডা হয়নি। এমন সময় এমন কাঁচা কাজ কাজ কি শাসক দল করতে যাবে ?

আরও পড়ুন : ‘তোমার দেহের প্রতিটা ইঞ্চি ভোগ করব’, ইমনকে অশ্লীল আক্রমণ ‘ছোটোলোক’ নেট নাগরিকের

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest