সরস্বতী পুজোয় যুগলে ঘুরতে দেখলেই ব্যবস্থা, উত্তরপাড়ায় ‘হুমকি’ পোস্টার বজরং দলের

Bajrang Dal: বজরং দলের নাম করে হুমকি পোস্টারের নিন্দা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

সরস্বতী পুজোয় উত্তরপাড়ায় নীতিপুলিশের ভূমিকায় বজরং দল। গঙ্গার ঘাটে পোস্টার সাঁটিয়ে হুমকি দেওয়া হয়েছে, পুজোর দিন জুটি হিসেবে ঘুরলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই ধরনের পোস্টারের তীব্র নিন্দা করেছেন স্থানীয় তৃণমূল। দলের নেতাদের অভিযোগ, বিজেপি, বজরং দল একই গোত্রের। বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, তাঁরা এই ধরনের ‘পাশ্চাত্য সংস্কৃতি’কে সমর্থন করেন না। তবে তাঁরা কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার বিরোধী। কে বা কারা পোস্টার লাগিয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বসন্ত পঞ্চমীর দিন সরস্বতী পুজোর পাশাপাশি বন্ধু ও বান্ধবীর সঙ্গে ঘোরাফেরা, খাওয়া-দাওয়া করে স্কুল-কলেজ পড়ুয়ারা। প্রেমিকের সঙ্গে একান্তে সময় কাটাতে ভিড় জমায় পার্ক, রেস্তরাঁ কিংবা গঙ্গার ধারে। উত্তরপাড়ায় সেই ভিড় দেখা যায় গঙ্গার ঘাটগুলিতে। কিন্তু এ বছর ওই ঘাটগুলিতে পড়েছে বজরং দলের পোস্টার। মঙ্গলবার সকালে ওই হুমকি পোস্টারগুলি নজরে পড়তেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

আরও পড়ুন: OMG! ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ, শ্বশুরের যৌনাঙ্গ কাটল মহিলা

পোস্টারের বক্তব্য, ‘বসন্ত পঞ্চমী সরস্বতীর আরাধনার দিন। এই দিনটিতে আমাদের সংস্কৃতিকে পাশ্চাত্য সংস্কৃতি ব্যবহার করে নষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে। কিছু মানুষ বাংলার ‘ভ্যালেন্টাইনস ডে’-তে রূপান্তরিত করে ফেলেছেন এই দিনটিকে। এই পাশ্চাত্য সংস্কৃতি কোনও ভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়’। পোস্টারে কঠোর ব্যবস্থার হুঁশিয়ারির পাশাপাশি বজরং দলের দাবি, তাদের সরকার এলে এই ধরনের সংস্কৃতি বরদাস্ত করা হবে না।

বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘পোস্টারের বিষয়বস্তুকে সমর্থন করে বিজেপি। তবে বিষয়বস্তুকে সমর্থন করলেও হুমকিকে সমর্থন নয়।’ অন্যদিকে, বজরং দলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, তারা কোনও পোস্টার দেয়নি।

আরও পড়ুন: টুইটার থেকে মমতার ছবি সরাতেই ফলোয়ার হলেন ধনখড়! গেরুয়া দলে ভিড়তে আজ শাহ-নাড্ডার সঙ্গে সাক্ষাৎ দীনেশের