করোনাতঙ্কে যাত্রীরা টিকিট না নেওয়ায় ভাড়া যাচ্ছে কন্ডাক্টরের পকেটে! ফাঁপড়ে বাসমালিকরা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

“সঠিক ভাড়া দিন, দয়া করে টিকিট নিন। টিকিট স্যানিটাইজ করা আছে,” আনলকের (Unlock) বাজারে যাত্রীদের কাছে করুন অর্তি বাসমালিকদের। বাসে লাগানো হচ্ছে পোস্টারও। যাতে পরিষ্কার লেখা থাকছে, সব টিকিট স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। তাই নিশ্চিন্তে তা হাতে নিতে পারেন। উদ্দেশ্য একটাই। এই পোস্টার দেখে যাত্রীরা যাতে ভাড়া দিয়ে অন্তত টিকিটটা নেন। আর টিকিট বিক্রির ন্যূনতম অংশ পান বাসমালিকরা।

৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাস, মিনিবাসের কর মকুব করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। ছাড় দেওয়া হয়েছে পারমিট ফি–তেও। বেজায় স্বস্তি পেয়েছেন বাসমালিকরা। কিন্তু একটা সমস্যা কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না। বাসে যাত্রী হচ্ছে, কিন্তু সেই তুলনায় টিকিট বিক্রি হচ্ছে কম। আর তার জেরে দিনের পর দিন আয় কমছে বাসমালিকের।

আরও পড়ুন: পদ্মপার্টিতে ফের ভাঙন, বারুইপুরে ৪০০ বিজেপি কর্মী যোগ দিল তৃণমূলে

আনলক পর্বে বেশিরভাগ কর্মস্থলই চালু রয়েছে। আগের থেকে বাসে যাত্রীদের সংখ্যাও বেড়েছে। সারাদিন বহু যাত্রীর সংস্পর্শে আসেন বাস কন্ডাক্টাররা। টিকিট দেওয়া–নেওয়া হয়। আর সেখানেই থেকে যাচ্ছে করোনাভাইরাস ছড়ানোর ভয়। তাই বাসভাড়া মিটিয়ে দিলেও টিকিট বা ফেরত পাওয়া খুচরো পয়সাও নিতে চাইছেন না অধিকাংশ যাত্রী। অবিক্রিত সেই টিকিট থেকে যাচ্ছে বাস কন্ডাক্টারের কাছেই। আর বাসচালক ও কন্ডাক্টার মিলে যাত্রীদের দেওয়া ভাড়া পকেটস্থ করছেন। টাকার মুখ দেখতে পাচ্ছেন না বাসমালিকরা।

যদিও সুযোগের এই সদব্যবহারের খবর বাসমালিকদের কানে ইতিমধ্যে পৌঁছেছে। তাঁদের আক্ষেপ, যাত্রীসুরক্ষার কথা ভেবে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে রোজের টিকিট রোজ স্যানিটাইজ করে কন্ডাক্টরদের দেওয়া হয়। তবুও সংক্রমণের আতঙ্কে এই দুরবস্থা। তাই এবার টিকিট স্যানিটাইজ করার ব্যাপারে যাত্রীদের অবগত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাসমালিকদের সংগঠন। বিভিন্ন রুটের বেসরকারি বাসে লাগানো হয়েছে একাধিক পোস্টার। তাতে বাসমালিকদের আর্জি, ‘‌দয়া করে সঠিক ভাড়া দিয়ে স্যানিটাইজ করা টিকিট সংগ্রহ করুন।’‌ এখন এই আবেদনে বাসযাত্রীরা সাড়া দেবেন কিনা এটাই দেখার।

আরও পড়ুন: পূর্ব বর্ধমান জেলার দৈনিক করোনা পরীক্ষা দ্বিগুণ করার নির্দেশ রাজ্যের, বাজারহাট খোলার সময়সীমা নিয়ে কাটলো বিভ্রান্তি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest