করোনায় স্বামীর মৃত্যু, খবর পেয়েই দুই সন্তান সহ রেললাইনে ঝাঁপ দিলেন স্ত্রী

করোনা আক্রান্ত হয়ে শিক্ষক স্বামীর মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টার পরই দুই শিশু কন্যাকে নিয়ে রেললাইনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন স্ত্রী। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে নিউ জলপাইগুড়ি স্টেশনে। গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিন জন।মাটিগাড়ার হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, শিশু কন্যাদের অবস্থা স্থিতিশীল। তবে শিক্ষকের স্ত্রী সীমার অবস্থা এখনও সঙ্কটজনক।ঘটনার আকস্মিকতায় হতবাক শিলিগুড়ির ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের চম্পাসারি এলাকার বাসিন্দারা।

শিলিগুড়ি পুলিশ কমিশনারেট সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন বেলা ১২টা থেকে সাড়ে ১২ টা নাগাদ নিরাপত্তা রক্ষীদের নজর এড়িয়ে নিউজলপাইগুড়ি স্টেশনের একটি ফুট ওভারব্রিজ থেকে ৪ বছর এবং ২ বছরের দুই শিশুকন্যাকে নিয়ে রেল লাইনে ঝাঁপ দেন বছর ৩৫-এর এক মহিলা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁদের তিন জনকে মাটিগাড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাঁদের পরিচয় জানা যায়।

আরও পড়ুন : বাড়ছে করোনা, রাজ্যে ফের কড়া লকডাউন, বন্ধ থাকবে প্রায় সব কন্টেইনমেন্ট জোন

মৃত ৩৮ বছর বয়সের ওই যুবক খড়িবাড়ির রামজনম প্রাইমারি স্কুলের সহকারি শিক্ষক ছিলেন। লকডাউন চলায় স্কুল বন্ধ। তাই এখন বাড়িতেই ছিলেন। শিলিগুড়ি ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের চম্পাসারি এলাকায় বাড়িতে ছোট দুই শিশুকন্যা ও স্ত্রীকে নিয়ে থাকতেন তিনি। তাঁর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কদিন থেকেই জ্বর, সর্দি, কাশি- সহ করোনার উপসর্গে ভুগছিলেন ওই শিক্ষক। ৩ জুলাই শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে দেখাতে গেলে সেখানেই তাঁকে ভর্তি রাখা হয়। করোনা পজেটিভ রিপোর্টও আসে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই শিক্ষকের হৃদপিন্ডের সমস্যা ছিল। তাঁর শ্বাসকষ্ট বাড়তে থাকে। হাসপাতালের সুপার অমিতাভ মন্ডল পুলিশকে জানিয়েছেন, শ্বাসকষ্টের জন্য তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। সোমবার গভীর রাতে তাঁর মৃত্যু হয়। ভোর বেলা হাসপাতাল থেকে স্বামীর মৃত্যুর খবর পান স্ত্রী সীমা।

আরও পড়ুন : আমেরিকাকে ‘শিক্ষা’ দিতে পাল্টা চাল, Apple Store থেকে ৪,৫০০ গেম সরাল চিন!