মুজাফফরপুরে পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু ‘ছোট’ ঘটনা, দিলীপ ঘোষের মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

কলকাতা: স্টেশনে পড়ে থাকা মায়ের মৃতদেহ। গায়ের চাদর ধরে জাগানোর চেষ্টা করছে শিশু। বিহারের মুজফ্ফরপুর স্টেশনের এই মর্মান্তিক ছবি বহুকাল ভারতবাসীকে নাড়া দেবে। এ মৃত্যু উপত্যকাই আমার দেশ, মর্মান্তিক ভিডিও শেয়ার করে এই বার্তাই দিচ্ছে নাগরিক সমাজ।

এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, মুজফ্ফরপুরে মহিলা পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু ছোট ঘটনা। বর্তমান পরিস্থিতি স্বাভাবিক নয়, কিছু ঘটনা ঘটছে, এগুলিকে ব্যতিক্রম হিসেবেই ধরা উচিত। তবে ঘটনা দুঃখজনক বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন: দাঁড়িয়ে যাত্রা নিষেধ, বাসে আসন অনুযায়ী তুলতে হবে যাত্রী, নয়া নিয়ম চালু বাংলায়

জানা যায়, ওই মহিলা এক পরিযায়ী শ্রমিক পরিবারের সদস্য। কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনে করে গুজরাত থেকে ফিরছিলেন তিনি। রবিবার ট্রেনে উঠ্যেছিলেন তিনি। কিন্তু আর বাড়ি ফেরা হল না তাঁর। ট্রেনের মধ্যেই গরম ও খিদে তেষ্টায় অসুস্থ হয়ে মৃত্যু হয় তাঁর। এই ঘটনা ঘটেছে সোমবারে।

সারা দেশ যখন এই ঘটনার ভিডিও ঘিরে আলোড়িত। তখন রাজ্য বিজেপি সভাপতির এহেন মন্তব্যকে অনেক সাধারণ মানুষই ভালো চোখে নেবে না বলে মনে করছেন সচেতন মহল। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় মুণ্ডপাত হচ্ছে বঙ্গ বিজেপির সভাপতির। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, কেন্দ্রে বিজেপির সরকার না থাকলে রেলের এই উদাসীনতাকে তখনও ছোট-বিক্ষিপ্ত ঘটনা বলতে পারতেন তো দিলীপবাবুরা? তখন তো পথে নেমে অবরোধ-বিক্ষোভে শামিল হতেন বিজেপি নেতারা। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় তোপ দেগেছেন দিলীপ ঘোষকে। বলেছেন, ‘করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থ কেন্দ্র।পরিকল্পনাহীনভাবে লকডাউনের ফলে মূল্য চোকাতে হচ্ছে পরিযায়ী শ্রমিকদের। আর বিজেপি নেতারা ঔদ্ধত্য দেখিয়ে বলছেন, কিছুই হয়নি।’

সিপিএমের পলিটব্যুরো নেতা মহম্মদ সেলিম তীব্র নিন্দা করে বলেছেন, ‘পরিযায়ীদের হাহাকার প্রমাণ করে দিচ্ছে মানুষের জীবনের কোনও মূল্য নেই মোদি সরকারের কাছে। দিলীপ ঘোষদের মতো নেতারা যাই হোক না কেন বারবার বলবেন, বিজেপির আমলে সব ঠিক হচ্ছে। এরা লজ্জা-শরম খেয়ে বসে আছে।’

আরও পড়ুন: ৭ জুন থেকে খুলে যাচ্ছে সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি অফিস, জানিয়ে দিলেন মমতা

Gmail 3

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest