‘দিদি’ নয়, বাংলার ‘নিজের মেয়ে’ মমতা, নতুন স্লোগান নিয়ে ময়দানে তৃণমূল

এবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ‘ঘরের মেয়ে’ ভাবমূর্তিকে কাজে লাগাতে চাইছে শাসকদল। 

দিদিকে বলো’, ‘বাংলার গর্ব মমতা’র পর এবার ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’। বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখে নতুন স্লোগান প্রকাশ্যে আনল চলেছে তৃণমূল (Trinamool Congress)।

শনিবার তৃণমূল ভবনে এই স্লোগানের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন, সুখেন্দু শেখর রায় এবং কাকলি ঘোষদস্তিদার। নতুন স্লোগান সম্পর্কে সুব্রত বক্সী বলেন, ‘‘এই স্লোগানের মধ্য দিয়ে বাংলার সমস্ত মানুষের কাছে তৃণমূলের হাজার হাজার কর্মীরা পৌঁছবেন। সারা রাজ্য ঘুরে আমাদের কর্মীরা উপলব্ধি করেছেন বাংলার সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ও সম্প্রীতি মমতা বন্দ্যোপাধ্যাযয়ের হাতেই সুরক্ষিত। তিনিই পারবেন তা রক্ষা করতে।’’

এত দিন তৃণমূলের বিভিন্ন স্লোগানে প্রাধান্য পেয়েছে সম্বন্ধসূচক ‘দিদি’ শব্দটি। যেখানে বাংলার প্রশাসনিক প্রধান হিসাবে ‘দিদি’কে তুলে ধরা হয়েছে সব সমস্যা সমাধানের উপায় হিসাবে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায় ‘দিদিকে বলো’-র কথা। অর্থাৎ বার্তাটি এই যে, তাঁর কাছে গেলে সব সমস্যার সমাধান হবে। কিন্তু ভোটের আগে তৃণমূলনেত্রী ভোটপ্রার্থী। যে কারণেই তিনি হলেন ‘বাংলার নিজের মেয়ে’।

বাংলার নির্বাচনের আগে স্পষ্টতই বাঙালি আবেগকে হাতিয়ার করতে চাইছে তৃণমূল। তাঁদের প্রচারের একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে বাংলা বনাম বহিরাগতর তত্ত্ব। বিজেপির (BJP) কেন্দ্রীয় নেতাদের ‘বহিরাগত’ বলে দেগে দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ‘ঘরের মেয়ে’ হিসেবে তুলে ধরার চেষ্টা করছে রাজ্যের শাসকদল। সেই লক্ষ্যেই ‘বাংলার গর্ব মমতা’ নামের প্রচারাভিযান ইতিমধ্যেই শুরু করেছে শাসকদল। এবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর ‘ঘরের মেয়ে’ ভাবমূর্তিকে কাজে লাগাতে চাইছে শাসকদল।

আরও পড়ুন: ‘র‍িগিং যদি করতেই হয় আমরাই করব’, বেফাঁস মন্তব্যে হুমকির সুর সৌমিত্র খাঁ’র গলায়

আসলে, বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা যতই রাজ্যে প্রচারে আসুন না কেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) পালটা মুখ্যমন্ত্রীর মুখ কে হবেন, এখনও তা ঘোষণা করতে পারেনি গেরুয়া শিবির। তৃণমূল মনে করছে, সেটাই তাঁদের সবচেয়ে বড় অ্যাডভান্টেজ। আর সেকারণেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাবমূর্তিকে পুঁজি করতে চাইছে শাসক শিবির। মুখ্যমন্ত্রী নিজেও গত সপ্তাহে রায়গঞ্জের সভা থেকে ঘোষণা করেছেন, “এই ভোটটা আমার। তাই প্রার্থী যেই হোক, আমাকে চাইলে তৃণমূলে ভোট দেবেন।” সূত্রের খবর, তৃণমূলের নতুন এই প্রচারাভিযানও মূলত মমতাকে কেন্দ্র করেই।

আগের নির্বাচনগুলিতে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই স্লোগান তৈরি করেছেন। তৃণমূল সূত্রে জানা গিয়েছে, এ বারের স্লোগান তাঁর তৈরি নয়। ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’ তৈরি করেছেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর (পিকে)। এর আগের ‘দিদিকে বলো’ ও ‘বাংলার গর্ব মমতা’ তাঁরই তৈরি। ‘দিদিকে বলো’ বেশ জনপ্রিয়ও হয়েছিল। তাই বাংলার আগামী বিধানসভা ভোটে স্লোগানের দায়িত্বে ছিলেন প্রশান্তই। পিকে-র স্লোগানগুলিতে ব্যক্তি মমতাই বেশি প্রাধান্য পেয়ে এসেছে। নতুন স্লোগানেও সেটা লক্ষ্যণীয়।

সুব্রত মুখোপাধ্যায় এদিন বলেন, ‘‘নির্বাচনের প্রাক্কালে অনেক রাজনৈতিক দল ঘুরে বেড়াচ্ছে। তন্ন তন্ন করে নিজেদের মুখ খুঁজে বেড়াচ্ছে তারা। আমরা খুঁজছি না। কারণ, আমাদের ঘরের মধ্যে একটি মেয়ে রয়েছে। যাঁর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যিনি গত ১০ বছরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে মানুষের সেবা করেছেন। তাই সবাই এক বাক্যে বলছে, আমাদের প্রিয় বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতাই হবেন, আগামী দিনের মুখ্যমন্ত্রী।’’

আরও পড়ুন: ‘হাল ফেরাও,লাল ফেরাও’! শক্তি পরীক্ষার ব্রিগেডে সিপিএমের লক্ষ্য ১০ লাখ লোক ও ‘টুম্পা সোনা’