এখনও এককভাবে সরকার গঠনের দৌড়ে এগিয়ে তৃণমূল, পছন্দের মুখ্যমন্ত্রী মমতা : বলছে সমীক্ষা রিপোর্ট

এবিপি আনন্দ-সিএনএক্স জনমত সমীক্ষায় বঙ্গের মসনদে বসার দৌড়ে কিছুটা এগিয়ে থাকল তৃণমূল কংগ্রেস।

আর মাত্র কয়েকদিনের মধ্যে ঘোষণা হতে চলেছে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনের নির্ঘণ্ট। ভোট যত এগিয়ে আসছে ততই যেন পারদ চড়ছে। পুরোদমে প্রচার শুরু করে দিয়েছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি। এর মধ্যে ABP-CNX জনমত সমীক্ষা সামনে এল। বাংলার মানুষের মন বুঝতে সমীক্ষা চালায় এই সংস্থা। সেখানে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বাংলায় সম্ভাব্য ফলাফল হতে পারে, সেই বিষয়ে ABP-CNX জনমত সমীক্ষা ইঙ্গিত দিয়েছে।

সমীক্ষার নিরিখে এখনও পর্যন্ত একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে পারে তৃণমূল কংগ্রেস। সেই ফল অনুয়াযী, বিধানসভা ভোটে ১৪৬-১৫৬ টি আসনে জিততে পারে ঘাসফুল শিবির। এমনিতে রাজ্যে ম্যাজিক ফিগার ১৪৮।

নবান্নে দখলের মরিয়া চেষ্টা চালালেও আপাতত বিজেপি বেশ খানিকটা পিছিয়েই আছে। সমীক্ষা অনুযায়ী, বিজেপির সম্ভাব্য আসন সংখ্যা দাঁড়াতে পারে ১১৩ থেকে ১২১।

সমীক্ষা অনুযায়ী, বাম-কংগ্রেসের ঝুলিতে যেতে পারে ২০-২৮ টি আসন।

তবে রাজনৈতিক মহলের মতে, বিধানসভা নির্বাচনে কোনও দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নাও পেতে পারে। সেক্ষেত্রে কিংমেকারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে পারে বাম-কংগ্রেস জোট। তাতে অবশ্য অনেকেই বিধায়ক ‘কেনাবেচার’ ভ্রূকূটি দেখতে পাচ্ছেন।

আরও পড়ুন: ‘বাইক অ্যাম্বুলেন্স দাদা’ করিমুল হকের নামে ডাকটিকিট

ভোট শতাংশ

সমীক্ষা অনুযায়ী, তৃণমূলের পেতে পারে ৪১.০৯ শতাংশ ভোট। বিজেপি পেতে পারে ৩৬.৬৪ শতাংশ ভোট। বাম ও কংগ্রেস জোট পেতে পারে ১৭.১৪ শতাংশ ভোট। AIMIM পেতে পারে ০১.১৫ শতাংশ ভোট। অন্যান্য পেতে পারে ০৩.৯৮ শতাংশ ভোট।

মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে কে পছন্দ

সমীক্ষা অনুযায়ী, মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে রাজ্যের ৩৮ শতাংশ মানুষের পছন্দ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দিলীপ ঘোষ ১৯ শতাংশ, শুভেন্দু অধিকারী ১০ শতাংশ, মুকুল রায় ৩ শতাংশ মানুষের পছন্দের মধ্যে  রয়েছেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে মুখ্যমন্ত্রী  হিসাবে দেখতে চান ৪ শতাংশ মানুষ। অধীর চৌধুরীকে ৫ শতাংশ ও সুজন চক্রবর্তীকে ৪ শতাংশ মানুষ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে পছন্দ করেন।

গত ২৩ জানুয়ারি থেকে ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে সেই জনমত সমীক্ষায় ৮,৯৬০ জনের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। তার ভিত্তিতে জনমত সমীক্ষার ফল তুলে ধরেছে ওই সংস্থা।

আরও পড়ুন: সরস্বতী পুজোয় যুগলে ঘুরতে দেখলেই ব্যবস্থা, উত্তরপাড়ায় ‘হুমকি’ পোস্টার বজরং দলের