কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে মন্তব্য কেন? জবাব চেয়ে ফের মমতাকে নোটিস কমিশনের

বৃহস্পতিবার হাওড়ার ডোমজুড়ের সভা থেকে তিনি বলেন, ‘‘আমাকে ১০ বার শো-কজ করেও লাভ নেই। একই জবাব দেব।’’
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বার বার শো-কজ করেও কোনও লাভ হবে না, বৃহস্পতিবারই প্রচারসভা থেকে এমন মন্তব্য করেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার পরই ফের তৃণমূল নেত্রীকে নোটিস ধরাল নির্বাচন কমিশন। গত ২৮ মার্চ এবং ৭ এপ্রিল প্রচার সভা থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিয়ে মন্তব্যের জেরেই এই নোটিস বলে কমিশন সূত্রে খবর। বৃহস্পতিবার নোটিস ধরানো হয়েছে তৃণমূল নেত্রীকে। শনিবার সকাল ১১টার মধ্যে উত্তর দিতে বলা হয়েছে।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্য নতুন নয়। একাধিকবার জনসভা থেকে তিনি দাবি করেছেন, কেন্দ্রীয় বাহিনী আসলে বিজেপির পক্ষে ভোট করাচ্ছে। তৃতীয় দফা ভোটের দিন টুইটারেও এমন অভিযোগ আনেন তিনি। সেই প্রেক্ষিতেই এবার জবাব তলব করল কমিশন। কেন এই ধরনের মন্তব্য করছেন তিনি? সেই বিষয়ে জানতে চেয়েছে কমিশন।

সম্প্রতি এক জনসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীকে দেখলে তাকে ঘিরে ধরে আটকে রেখে ভোট দিতে যেতে হবে।’ সাধারণ মানুষের প্রতি বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, ‘শুধু আটকে রাখলেই হবে না ভোটটাও দিয়ে আসতে হবে।’ আটকে রেখে ভোট না করানোটাই কেন্দ্রীয় বাহিনীর উদ্দেশ্য বলে মন্তব্য করেন মমতা। এরপর তৃতীয় দফার ভোট চলাকালীন টুইটারে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে বিশেষ মন্তব্য করতে দেখা যায় তৃণমূল নেত্রীকে।

আরও পড়ুন: পদ্মে ভোট দিলেই মিলছে কড়কড়ে ১০০০ টাকা! অভিযোগ তৃণমূলের

সেখানে তিনি দাবি করেন, ‘কেন্দ্রীয় বাহিনীকে অপব্যবহার করা হচ্ছে। নির্বাচন কমিশনে এ ব্যাপারে বারবার জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি। উর্দি পরা বাহিনীর দল বিভিন্ন জায়গায় এক বিশেষ দলের পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য মানুষকে প্রভাবিত করছে বলে উল্লেখ করেন মমতা। তিনি আরও বলেন, ‘এই পরিস্থিতিতে কমিশন নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে।’ এই মন্তব্যের জেরে এবার জবাব তলব করল কমিশন।

এই ধরনের মন্তব্য করে একাধিক ধারায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে মত নির্বাচন কমিশনের। গত দু’দিনে এই নিয়ে দ্বিতীয় বার মমতাকে নোটিস ধরাল তারা। এর আগে, হুগলির তারকেশ্বরে মমতা বিধিভঙ্গ করেছেন বলে বুধবারই তাঁকে নোটিস পাঠানো হয়। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছিল তাঁকে। তবে নোটিস হাতে পাওয়ার পর কমিশনকে পাল্টা হুঁশিয়ারি দেন মমতা। বৃহস্পতিবার হাওড়ার ডোমজুড়ের সভা থেকে তিনি বলেন, ‘‘আমাকে ১০ বার শো-কজ করেও লাভ নেই। একই জবাব দেব।’’ কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগও তোলেন তিনি। অভিযোগ করেন, বিজেপি-র নেতারা প্রকাশ্যে সাম্প্রদায়িক মন্তব্য করলেও, তাঁদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা হয় না।

আরও পড়ুন: ‘আমাকে ১০ বার শো-কজ করেও লাভ নেই, একই জবাব দেব’, কমিশনকে তোপ মমতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest