সরছে বঙ্গোপসাগরের অতি গভীর নিম্নচাপ, একাধিক রাজ্যে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা, বৃষ্টির ভ্রুকূটি বাংলাতেও

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আজ অন্ধ্রপ্রদেশে স্থলভাগে ঢুকছে বঙ্গোপসাগরের অতি গভীর নিম্নচাপ। সর্বোচ্চ ৭৫ থেকে ৮০ কিলোমিটার গতি থাকবে ঝড়ের। এর প্রভাবে ওড়িশা-সহ দক্ষিণ ভারতের রাজ্যগুলিতে প্রবল বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে। বাংলায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হবে দক্ষিণে।

আগে জানানো হয়েছিল, এই নিম্নচাপের প্রভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই রাজ্যে। ফলে পুজোর প্রস্তুতি পর্বে কোনও ব্যাঘাত ঘটবে না। তবে মঙ্গলবার আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণবঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। কলকাতায় আজ আংশিক মেঘলা আকাশ। বজ্রবিদ্যুৎ সহ দু-এক পশলা বৃষ্টির সামান্য সম্ভাবনা।

আরও পড়ুন: #BollywoodStrikesBack: রিপাবলিক,টাইমস নাওয়ের বিরুদ্ধে এবার হাইকোর্টে সলমন,শাহরুখ, অক্ষয় কুমার-সহ ৩৪ টি প্রযোজনা সংস্থা

আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, সোমবারের নিম্নচাপটি অতি গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়ে মঙ্গলবার ভোরে উত্তর অন্ধ্র উপকূল অতিক্রম করেছে। ওই অঞ্চলে হাওয়ার গতিবেগ থাকবে ৫৫ থেকে ৬৫ কিমি প্রতি ঘণ্টা। কোথাও কোথাও তা বেড়ে ৭৫ কিমি প্রতি ঘণ্টাও হতে পারে।আবহাওয়া দপ্তর এর আগেই জানিয়েছিল, এই নিম্নচাপের প্রভাবে ওড়িশা, তামিলনাডু ও পুদুচেরির উপকূল অঞ্চলে সর্বোচ্চ ৭০ কিমি প্রতিঘণ্টা বেগে হওয়া বইতে পারে।

প্রসঙ্গত, অক্টোবরে সাধারণত বঙ্গোপসাগরে এই ধরনের নিম্নচাপ তৈরি হয়। এর প্রভাবে পূর্ব উপকূল বিশেষত ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশে ভারী বৃষ্টি হয়। ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ, তামিলনাডু ও পুদুচেরি উপকূলে ও মান্নার প্রণালিতে সমুদ্রের পরিস্থিতি উত্তাল থেকে অতি উত্তাল থাকবে মঙ্গলবার সন্ধে পর্যন্ত। পশ্চিম-মধ্য, উত্তর-পশ্চিম ও দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরের মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। একই সঙ্গে সতর্কতা জারি করা হয়েছ ওড়িশা-অন্ধ্র প্রদেশ উপকূল, তামিলনাডু, পুদুচেরি, মান্নার প্রণালি অঞ্চলেও।

আরও পড়ুন: পুজোয় নবান্ন ও স্বাস্থ্য ভবনের কন্ট্রোল রুম খোলা ২৪ ঘণ্টা, বাতিল জরুরী পরিষেবার ছুটি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest