রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার বৈঠকে মোদি-মমতা, থাকবেন মুখ্যসচিবও

সব ঠিক থাকলে তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর এটিই হবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মমতার প্রথম বৈঠক। সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যের জন্য আরও টিকা এবং অক্সিজেন সরবরাহের দাবি করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

অবশেষে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় বসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার ভারচুয়ালি এই বৈঠক হবে। তাতে মুখ্যমন্ত্রীর পাশাপাশি রাজ্যের তরফে উপস্থিত থাকতে পারেন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব এবং স্বাস্থ্য সচিবও বৃহস্পতিবারের বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেন বলে নবান্ন সূত্রের খবর।

প্রথমে ঠিক ছিল, বৃহস্পতিবার রাজ্যের ৯ জেলার জেলাশাসকদের সঙ্গে কথা বলতে চান প্রধানমন্ত্রী। বাংলার পাশাপাশি অন্য ৯টি রাজ্যের জেলাশাসকের সঙ্গেও কথা বলার পরিকল্পনা ছিল মোদির। কিন্তু বুধবার নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, আগামিকালের বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন খোদ মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন : ওই লোকটা এখনও প্রদেশ সভাপতি পদে! অধীরের ‘শাস্তি’র দাবি শীর্ষ কংগ্রেস নেতার

সব ঠিক থাকলে তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর এটিই হবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মমতার প্রথম বৈঠক। সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যের জন্য আরও টিকা এবং অক্সিজেন সরবরাহের দাবি করতে পারেন মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি রাজ্যের কোভিড পরিস্থিতি এবং তা নিয়ন্ত্রণে রাজ্য সরকার কী কী ব্যবস্থা নিয়েছে, সবটাই তুলে ধরা হতে পারে প্রধানমন্ত্রীর সামনে। ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী করোনা পরিস্থিতিতে কেন্দ্র ও রাজ্যের সমন্বয়ের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন। চিঠি লিখেছেন রাজ্যের ভ্যাকসিন এবং অক্সিজেনের চাহিদা নিয়েও। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে মূলত এসব নিয়েই আলোচনা হবে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন ধরেই করোনা (CoronaVirus) পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৫ দিনে ১৮ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করলেও এখনও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী কথা বলেননি।

শুধু তাই নয়, করোনা মোকাবিলায় সহযোগিতা এবং রাজ্যের জন্য প্রয়োজনীয় অক্সিজেন ও ভ্যাকসিন পাঠানোর দাবিতে ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রীকে বেশ কয়েকটি চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেসব চিঠিরও কোনও জবাব কেন্দ্রের তরফে আসেনি। সেটা নিয়েও একাধিকবার ক্ষোভ জানানো হয়েছে রাজ্যের তরফে। অবশেষে ভয়াবহ এই পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনায় বসছেন প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রী।

আরও পড়ুন : Narada Scam: ‘তদন্ত শেষ বলেই তো চার্জশিট, তবে কেন গ্রেফতার?’ হাই কোর্টে যুক্তি টিম-সিঙ্ঘভির

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest