বরফ-রামধনু মাখামাখি! ‘Half-Frozen’ নায়াগ্রা ফলস দেখতে পর্যটকদের ভিড়, ভিডিও চমকে দেবে…

আংশিক ভাবে জমে গিয়েছে নায়াগ্রা জলপ্রপাত। ছবি-ভিডিয়ো দেখে মুগ্ধ নেট দুনিয়া।

সম্প্রতি উত্তর আমেরিকার তাপমাত্রা ভয়ঙ্কর ভাবে হিমাঙ্কের নিচে নেমে গিয়েছে। বরফে জমে গিয়েছে বেশিরভাগ শহর। এর প্রভাব পড়েছে নায়াগ্রার উপরেও। এই জলপ্রপাতের জলও বেশ খানিকটা জমে গিয়েছে। যদিও যে ভাবে তাপমাত্রা ক্রমাগত নিচের দিকে নেমেছে, তাতে গোটা জলপ্রপাতই জমে কুলফি হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু সৌভাগ্যবশত এই জলপ্রপাতে বিপুল পরিমাণ জলরাশি থাকার দরুন সেটা প্রায় অসম্ভব একটি কাণ্ড।

কিন্তু কিছুটা তরল আর কিছুটা জমে যাওয়া বরফ, এই দুইয়ের যুগলবন্দীতে নায়াগ্রা জলপ্রপাতের রূপ যেন আরও দ্বিগুণ হয়ে ধরা দিয়েছে। মনে হচ্ছে যেন ক্রিসমাস আরও একটু দীর্ঘ হয়েছে এবং যে কোনও মুহূর্তে নরম নরম সাদা বরফের উপর এসে দাঁড়াবে সান্তা ক্লজের স্লেজ।

আসলে কিছুটা জল জমে বরফ হয়েছে আর তার চারপাশ দিয়ে জলস্রোত এমন ভাবে বয়ে চলেছে যে দূর থেকে দেখে মনে হচ্ছে যে গোটা জলপ্রপাতই বুঝি জমে স্থির হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি এই অর্ধেক জমে যাওয়া এবং অর্ধেক প্রবহমান নায়াগ্রার ছবি ও ভিডিও Twitter-এ ছড়িয়ে পড়ে। আর সেটা পোস্ট করা মাত্রই ভাইরাল হয়ে যায়। বরফ আবৃত জলপ্রপাতের অপরূপ সৌন্দর্যে মজেছে নেট দুনিয়া। যিনিই এই ছবি দেখছেন, তিনিই বলছেন, ‘বাহ, অপূর্ব এই দৃশ্য’।

আরও পড়ুন: পাহাড়ের কোলে বসে অফিসের কাজ করতে চান? আপনার ঠিকানা হতে পারেন ‘কোকুন’

বলা হয়েছে যে এই অর্ধেক জমে যাওয়া জলপ্রপাত দেখতে প্রতি দিন শয়ে শয়ে মানুষ এখানে আসছেন। তবে এটা খুবই স্বাভাবিক একটি দৃশ্য। এমনিতেই অগণিত পর্যটক এখানে প্রতি বছর ভিড় জমান।

নায়াগ্রা ফলসের মধ্যে এবং চারপাশে ছড়িয়ে থাকা প্রকাণ্ড সব পাথরের খণ্ড বরফের সাদা চাদরে ঢেকে গিয়েছে। আর উপর থেকে তীব্র গতিতে বইছে হিমশীতল জলধারা। ভয়ঙ্কর তার স্রোত। অথচ পুরো পরিবেশ দেখতে মায়াবী লাগছে। আকাশে আবার ঝল মিলেছে রামধনুরও।

আমেরিকাতে অবস্থিত হলেও নায়াগ্রার মূল অবস্থান হল নিউ ইয়র্ক শহর এবং কানাডার ওন্টারিও অঞ্চলের সীমান্তে। আসলে এটি তিনটি জলপ্রপাতের মিশ্র ধারা। যার মধ্যে সব চেয়ে বড় জলপ্রপাত বা হর্স শ্যু জলপ্রপাত কানাডা ও আমেরিকার সীমান্তে অবস্থিত। এর আরেক নাম কানাডা ফলস। অপর দু’টি জলপ্রপাত আমেরিকান জলপ্রপাত ও ব্রাইডাল ভেল আমেরিকাতেই অবস্থিত।

এই ভাবে অর্ধেক জমে যাওয়া নায়াগ্রার কাছে কোনও বড় ব্যাপার নয়। এর আগে ২০১৪ এবং ২০১৫ সালে, পরপর দু’বছর আংশিক ভাবে জমে গিয়েছিল নায়াগ্রা ফলস।  তবে ১৮৪৮ সালে প্রায় ৩০ ঘণ্টার জন্য এই জলপ্রপাত পুরোপুরি জমে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন: বেড়াতে যাচ্ছেন? ব্যাগে রাখতে ভুলবেন না এই ৩টি জিনিস…