Hair stylist Habib arrested after spitting on woman's hair

মহিলার চুলে থুতু ছিটিয়ে ক্ষমাপ্রার্থনা, মিলল না রেহাই, গ্রেফতার হেয়ার স্টাইলিস্ট হাবিব

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

জলের অভাবে স্রেফ থুতু দিয়ে কীভাবে চুলের যত্ন নেওয়া যায়, প্রকাশ্য ওয়ার্কশপে তা শেখাতে গিয়ে ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেছেন বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্ট জাভেদ হাবিব (Jawed Habib)। মহিলার চুলে থুতু ছিটিয়ে এবার তিনি শ্রীঘরে। ভিডিও ভাইরাল হতেই ক্ষমা চেয়ে নিলেও রেহাই পাননি তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা এফআইআরে দ্রুত পদক্ষেপ নিল পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয়েছে হাবিবকে। ফ্যাশন দুনিয়া থেকে এই ঘটনার জল গড়াল জাতীয় স্তরে।

উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) বাগপতের তরুণী পূজা গুপ্তা  নিজেই একটি পার্লার চালান। গিয়েছিলেন জাভেদ হাবিবের একটি ওয়ার্কশপে। সেখানে পূজাকে মঞ্চে ডেকে নেন হাবিব। বলেন চুলের যত্ন নেওয়ার একটি ‘ডেমো’ দেখাবেন। পূজা বেশ খুশি মনেই রাজি হন। মঞ্চে উঠে তিনি হাবিবের কথা মতো বসে পড়েন চুল কাটার সিটে।

মহিলার চুলে থুতু দেওয়ার ভিডিওটি ভাইরাল হতেই চাপে পড়ে ক্ষমা চেয়েছেন জাভেদ হাবিব। বিষয়টি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ছিল না বলেই আত্মপক্ষ সমর্থনে বলছেন তিনি। কিন্তু তাতে বিতর্কে জল ঢালা যায়নি। জাতীয় মহিলা কমিশন বিষয়টি অত্যন্ত গুরুতর অপরাধ বলেই গণ্য করছে। কমিশনের চেয়ারপার্সন রেখা শর্মা উত্তরপ্রদেশ পুলিশের ডিজির (DG) কাছে চিঠি লিখে দাবি জানিয়েছেন, ভাইরাল ভিডিওতে যা দেখা যাচ্ছে, তার দ্রুত তদন্ত করে নিয়ে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। এই আবেদন পেয়েই হাবিবের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের দ্রুত পদক্ষেপ নেয় পুলিশ। গ্রেপ্তার করা হয় বিখ্যাত হেয়ার স্টাইলিস্টকে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় পূজা জানিয়েছেন, ”আমার চুল শ্যাম্পু করা ছিল না। উনি কাটতে কাটতে ঠিক আমার চুলের মাঝখানে থুতু ছেটালেন। তারপর বললেন – এই থুতুতে প্রাণ আছে”। আসলে, হাবিব বোঝাতে চাইছিলেন, জলের অভাবে কীভাবে চুলের যত্ন করা যায়। আর তার জন্য তিনি অন্যের চুলে স্রেফ থুতু ছিটিয়ে ডেমো দেখাতে চাইছিলেন। কিন্তু বিষয়টি হওয়ার পরই পূজা সেখান থেকে উঠে আসেন। এতটা গা ঘিনঘিনে ব্যাপার তাঁর সহ্য হয়নি। এই তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় পূজা এও জানিয়েছেন যে তিনি রাস্তার ধারে সেলুনে গিয়ে চুল কাটবেন, তবু কোনওদিন আর হাবিবের কাছে যাবেন না।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest