BREAKING: চলছে জনতা কারফিউ, তারই মধ্যে দিল্লির শাহিনবাগে পেট্রল বোমা হামলা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নয়াদিল্লি: কেন্দ্রের এনআরসি- সিএএ নীতির বিরোধিতা করে গত তিনমাস ধরে ধর্নায় বসেছেন দিল্লির মহিলারা। বেশ কয়েকবার চেষ্টা হয়েছে এই ধর্ণা বানচাল করার। রবিবার ফের হামলা হল শাহীনবাগে।

আরও পড়ুন: শুনশান রাস্তাঘাট, অমিল বাস, বন্ধ দোকানপাট, জনতা কার্ফু-তে স্তব্ধ রাজ্য

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আর্জিতে রবিবার, ২২ মার্চ, যখন দেশজুড়ে ১৪ ঘণ্টার ‘জনতার কারফিউ’ চলছে, তখন দিল্লির শাহীন বাগ থাকছে শাহীন বাগেই! নয়া নাগরিকত্ব আইন (CAA)-এর বিরোধিতায় শাহীন বাগে যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, ২২ মার্চেও তাতে ছেদ পড়েনি। রবিবার সকাল ৮টা নাগাদ দুই বাইক আরোহী এসে প্রতিবাদস্থল লক্ষ্য করে পেট্রল বোমা ছোড়ে বলে অভিযোগ। আগুনও লেগে যায় কিছু অংশে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আপাতত আক্রমণকারীদের শনাক্তকরণের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। এই ঘটনার জেরে শাহীনবাগের নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়েছে।

শাহীন বাগের এই প্রতিবাদীদের অধিকাংশই মহিলা। সিএএ’র বিরোধিতায় ১৫ ডিসেম্বর থেকে তাঁরা শাহীন বাগে ধরনায় বসেছেন। দিল্লি থেকে নয়ডা যাওয়ার পথে, শাহীন বাগে রাস্তাজুড়ে এই আন্দোলন চলছে। সোমবারই এ নিয়ে একটি পিটিশনের শুনানি রয়েছে সুপ্রিম কোর্টে। সুপ্রিম রায়ের উপরই নির্ভর করবে এর পর আদৌ শাহীন বাগে এই আন্দোলন চালিয়ে যাওয়া যাবে কি না।

আরও পড়ুন: ভয়াবহ পরিস্থিতি! করোনা-মৃত্যুতে ফের রেকর্ড, ইতালিতে ২৪ ঘণ্টায় মৃত ৭৯৩

 

দিল্লি-সহ দেশের সর্বত্র করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়লেও সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন শাহীন বাগের প্রতিবাদীরা। করোনা-সংক্রমণের জেরে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল একই জায়গায় একসঙ্গে পঞ্চাশের বেশি মানুষের জমায়েতের উপর সম্প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন।সেই নিষেধাজ্ঞার প্রেক্ষিতে প্রতিবাদীর সংখ্যা পঞ্চাশের নীচে নেমে এলেও, আন্দোলন থেকে সরে আসেনি শাহীন বাগ। প্রতিবাদীদের বক্তব্য, তাঁরা করোনা নিয়ে যথেষ্ট সচেতন। বয়স্কদের সমাবেশস্থলে আসতে নিষেধ করা হয়েছে। এমনকী যে মহিলারা আসছেন, তাঁদের বাচ্চাদেরও শাহীন বাগে সঙ্গে আনতে মানা করা হয়েছে।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest