Child died in Bomb blast at Nandigram, 2 injured

বল ভেবে বোমা নিয়ে খেলতে গিয়ে বিস্ফোরণ, নন্দীগ্রামে মৃত্যু ১ কিশোরীর, জখম আরও ২

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বল ভেবে বোমা নিয়ে খেলতে গিয়ে বিস্ফোরণ। পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রামে মৃত্যু হল এক কিশোরীর। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ ঘটে এই ঘটনা। পরিত্যক্ত একটি বাড়িতে রাখা ছিল বোমাটি।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, শুক্রবার সন্ধ্যায় নন্দীগ্রামের যদুবাড়িচক এলাকায় জাকির শাহ নামে এক ব্যক্তির বাড়ির সামনে খেলছিল কিছু কিশোর – কিশোরী। খেলতে খেলতে বাড়ির ভিতরে ঢোকে তারা। পরিত্যক্ত বাড়ির ভিতর বলের মতো কিছু দেখে হাতে তুলে নেয় এক কিশোরী। সঙ্গে সঙ্গে ঘটে বিস্ফোরণ।

বিস্ফোরণে গুরুতর আহত হয় ওই কিশোরী। তাকে নন্দীগ্রাম সুপার স্প্যেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যান পরিজনরা। সেখানে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। নিহতের নাম জাহিরুন খাতুন (১০)।

ঘটনায় আহত হয়েছে ২ কিশোর কিশোরী। তাদের চিকিৎসা চলছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীদের চেষ্টায় আহত শিশুদের উদ্ধার করে নন্দীগ্রাম সুপার স্পেশ্যালিটি হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কলকাতায় নিয়ে আসা হয়। কলকাতার হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে বলে খবর মিলেছে। জানা গিয়েছে, মৃত শিশুর নাম জাহিরুন খাতুন (৯)। বাকি দু’জনের চিকিৎসা চলছে নন্দীগ্রামের হাসপাতালে। কোথা থেকে বোমাগুলি ওই পরিত্যক্ত বাড়িতে এল, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে নন্দীগ্রাম থানার পুলিশ। গোটা ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে।

তৃণমূলের স্থানীয় অঞ্চল প্রধান জানিয়েছেন, ‘জাকির শাহ নামে ওই ব্যক্তি দীর্ঘদিন বাড়িতে থাকেন না। ওই বাড়িতে কে বা কারা বোমা রেখে গেল জানা নেই। শিশুগুলি খেলতে খেলতে বোমাকে বল ভেবে হাতে তুলে নিয়েছিল। কোনও ভাবে একটি বোমা হাত থেকে পড়ে যেতেই বিস্ফোরণ হয়। তাতে একজনের মৃত্যু হয়েছে। আরেকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। কারা বোমা রেখে গেল পুলিশ তদন্ত করে বার করুক।’

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest