'Modi is the almighty leader of the world!', Said Shuvendu while digging Mamata

‘মোদি বিশ্বের সর্বশক্তিমান নেতা!’, মমতাকে খোঁচা দিতে গিয়ে বললেন শুভেন্দু

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মুকুল রায়ের বিধায়কপদ খারিজের দাবিতে বিজেপির আবেদনের দ্বিতীয় শুনানিতে গিয়ে নরেন্দ্র মোদিকে ফের বিশ্বের সর্বশক্তিমান নেতা বলে দাবি করলেন বাংলার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। আগের বারের মতো এদিনও মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজের দাবিতে করা শুনানিতে হাজির হয়েছিলেন শুভেন্দু। শুনানি শেষে তাঁকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফর নিয়ে প্রশ্ন করা হলে নন্দীগ্রামের বিধায়ক বলেন, ‘আগেও ওসব জোট, ফোট করা হয়েছে। ফল দেখা গিয়েছে। নরেন্দ্র মোদি শুধু শ্রেষ্ঠ প্রধানমন্ত্রীই নন, বিশ্বের সর্বশক্তিমান নেতা। মোদিকে হঠানো অত সহজ নয়।’ বিধানসভা ভোটের আগেও বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকেই শুভেন্দুর মোদি-স্তুতি আলাদা করে নজরে পড়েছে রাজনৈতিক মহলের। যা এখনও অব্যাহত রয়েছে।

শুভেন্দুর কটাক্ষ, ‘একজন নন এমএলএ মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখছেন। ভোট তো অনেক দূরে। তিন বছর বাকি এখনও লোকসভা ভোটের। অথচ কলকাতার কিছু লোক এমন করছে যেন এই বছর নভেম্বর মাসে ভোট। এখনও অনেক বাকি। এখন বরং কোভিড নিয়ে, কর্মসংস্থান নিয়ে কথা হোক।’ যদিও শুভেন্দুর মোদি-স্তুতিকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূল।

আরও পড়ুন : ২ মাস অন্তর দিল্লি-যাত্রা, জোট-পরিকল্পনা করেই বাংলায় ফিরছেন তৃণমূল নেত্রী!

শুভেন্দুর এমন মোদী ভজনা শুনে অনেকে বলেছেন,আসলে নিজের পায়ের তলায় মাটি যে আর নেই তা বুঝছেন শুভেন্দু। তাই এখন কেবল মোদীকে খুশি করে টিকে থাকতে চাইছে। এমনি করে বেশিদিন রাজনীতি করা যায় না। রাজনীতি মানুষের সঙ্গে থেকে করতে হয়। শুভেন্দুর সঙ্গে কেউ নেই। তাই কিছুদিন অন্তর দৌড় লাগাচ্ছে দিল্লি।

এদিনের শুনানিতে বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির আবেদন গ্রহণ করেছেন বলে জানান শুভেন্দু। গত ১৬ জুলাই বিজেপির আবেদনের প্রথম শুনানিতে নথিপত্র জমা দেওয়া সইসাবুদের পর্ব চলেছিল। সেদিন স্পিকারের ঘরে মাত্র ৫ মিনিট কাটিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। শুক্রবার অবশ্য প্রায় ২৫ মিনিট স্পিকারের ঘরে ছিলেন বাংলার বিরোধী দলনেতা।

বাইরে এসে তাঁর দাবি, ‘আমাদের কাছে যাবতীয় প্রমাণ রয়েছে। আমরা তা স্পিকারের কাছে জমা দিয়েছি। তিনি দ্রুত সিদ্ধান্ত না নিলে আমরা আদালতের পথে হাঁটব।’ এই প্রসঙ্গেই তিনি তুলে আনেন দীপালি বিশ্বাসের কথা। তাঁর বিরুদ্ধে বামেদের দলত্যাগবিরোধী আইন প্রয়োগের দাবির ২৩ বার শুনানি হয়েছিল, সেই প্রসঙ্গ তুলে শুভেন্দু বলেন, ‘সেটা আমরা এবার হতে দেব না।’

আরও পড়ুন : Tokyo Olympics: গ্রুপের শেষ ম্যাচে জয়, হকিতে জাপানকে ৫-৩ গোলে হারাল ভারত

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest