কথাতেই আছে পাপ বাপকেও ছাড়ে না। বিধানসভার আগে তৃণমূল ভাঙতে বিজেপির তৎপরতার কমতি ছিল না। এখন নিজেদের দল সামলাতে শুভেন্দু-দিলীপদের নাভিশ্বাস উঠছে।বিজেপির অনেক বিধায়ক তৃণমূল কংগ্রেসের (AITC) সঙ্গে যোগাযোগ করছে ৷ সোমবার এমনই দাবি করেছিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee) ৷

মঙ্গলবার অভিষেকের এই মন্তব্যের পালটা জবাব দিলেন শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) ৷ তৃণমূলের তরফে বিজেপির বিধায়কদের ভাঙানোর চেষ্টা করার ফল যে ভালো হবে না, তা সরাসরি বুঝিয়ে দিলেন পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিরোধী দলনেতা ৷

আরও পড়ুন : 356-র জুজু মানুষ ভালোভাবে নেবে না, রাজীবের পোস্টে বিতর্ক

এদিন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক শেষের পর নয়াদিল্লিতে দাঁড়িয়ে বললেন, ‘‘এবার শুরুটা করে দেখুন ৷ বিরোধী দলে বিজেপি (BJP) ৷ নেতা প্রতিপক্ষ শুভেন্দু অধিকারী ৷’’

এর আগে অবশ্য তিনি উল্লেখ করেন গত দশ বছরে বঙ্গ রাজনীতিতে দলবদলের ইতিহাসকে ৷ জানান যে দলবদল রাজনীতির অঙ্গ ৷ গতবার তৃণমূল শুরু করেছিল ৷ তার পর অন্যদল করে ৷ কিন্তু অন্যদল থেকে তৃণমূলে যাওয়াদের বাঁচাতে দলত্যাগ বিরোধী আইন প্রয়োগ করতে দেওয়া হয়নি ৷

এর পরই তাঁর হুঁশিয়ারি, এবার আর সেটা হবে না ৷ আর তখনই তিনি মন্তব্য করেন, ‘‘এবার শুরুটা করে দেখুন ৷ বিরোধী দলে বিজেপি ৷ নেতা প্রতিপক্ষ শুভেন্দু অধিকারী ৷’’ এর পর তিনি এই মন্তব্যের ব্যাখ্যাও করেন ৷ জানান, সংসদে দলত্যাগ বিরোধী আইন পাস করানো হয়েছে ৷ সেই আইন কীভাবে কার্যকর করাতে হয়, তা তিনি ভালোই জানেন ৷

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন যে বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই বিজেপিতে যোগ দেওয়া অনেকেই তৃণমূলে ফিরতে চাইছেন ৷ তবে তৃণমূল এখনও সেই বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত নেয়নি ৷ এই নিয়েই সোমবার তৃণমূল ভবনে প্রশ্ন করা হয়েছিল অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ৷ তখনই তিনি বিজেপির বিধায়কদের তৃণমূলের সঙ্গে যোগাযোগের প্রসঙ্গ তোলেন ৷

একই সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধেও তোপ দেগেছিলেন অভিষেক ৷ সেই অভিযোগ নিয়ে সরাসরি কোনও উত্তর দেননি শুভেন্দু ৷ তাঁর কথায়, শাসক দলে থেকে ভোটের জেতার পর অনেক কথা বলা যায় ৷ কিন্তু তিনি বাম জমানায় বিধায়ক হয়েছেন ৷ লোকসভা নির্বাচনে সিপিএমের লক্ষ্মণ শেঠকে হারিয়েছেন ৷ আর এবার হারিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) ৷ তবে এই প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর কটাক্ষ, ‘‘তৃণমূল আঞ্চলিক দল ৷ ওই দল সম্পর্কে কোনও কথা বলব না ৷’’

উল্লেখ্য, এবার বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল জেতার পর থেকে জাতীয়স্তরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে ৷ অনেকে ইতিমধ্যেই মমতাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চেয়েছেন ৷ এই প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর কটাক্ষ, ‘‘গরুর গাড়ির হেড লাইট ৷’’

আরও পড়ুন : বিশ্বজুড়ে স্তব্ধ বিবিসি, দ্য গার্ডিয়ান, নিউইয়র্ক টাইমস, ব্লুমবার্গ, অ্যামাজনের সাইট, কারণ ঘিরে ধোঁয়াশা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *