সরগরম কলাইকুণ্ডা! মুখ্যমন্ত্রী–প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে থাকছেন রাজ্যপাল

কলাইকুণ্ডার বৈঠক হাইভোল্টেজ হতে চলেছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ইয়াসে বিপর্যস্ত এলাকা পরিদর্শন করতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi)। বাংলা (West Bengal) ও ওড়িশার (Odisha) ক্ষতিগ্রস্ত বিভিন্ন জেলা সরেজমিনে খতিয়ে দেখবেন তিনি। পশ্চিম মেদিনীপুরের কলাইকুণ্ডায় বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) সঙ্গে। তাঁদের বৈঠকে থাকবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও (Governor Jagdeep Dhankhar)। কলাইকুণ্ডা এয়ার ফোর্স স্টেশনে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যপাল।

সকালেই টুইট করে সেই কথা জানিয়েছেন তিনি। এই উপস্থিতি নিয়ে জোর চর্চা শুরু হয়েছে। রাজ্যপাল থাকতেই পারেন। তা নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। কিন্তু এতদিন প্রধানমন্ত্রী–মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে এমন নজির দেখা যায়নি। তাই চর্চা শুরু হয়েছে। রাজ্যপালকে কী এই বৈঠকে সাক্ষীগোপাল করা হচ্ছে?‌ এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজ্য–রাজনীতিতে। আবার অনেকে বলছেন, যেহেতু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর সঙ্গে মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাখছেন তাই রাজ্যপালকেও রাখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন : প্রবল বৃষ্টি হতে পারে দক্ষিণবঙ্গে, বন্যায় ভাসতে পারে কয়েকটি জেলা

আমফানের পর মোদী–মমতার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল। এবারও তাই থাকবেন। কিন্তু রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সম্পর্ক মোটেই মধুর নয়। তাই রাজ্যপাল এই বৈঠকে থাকুন তা অনেকে চান না। সূত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী–মুখ্যমন্ত্রী বৈঠকের পর রাজ্য সরকার আলোচনা মতো কাজ করেন কিনা তা নজর রাখতেই এখানে উপস্থিত থাকবেন রাজ্যপাল বলে এক সরকারি আধিকারিক জানাচ্ছেন।

ইতিমধ্যেই টুইট করে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশংসা করেছেন রাজ্যপাল। টুইটে তিনি লিখেছেন, বিপর্যয় মোকাবিলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যা করেছেন, তা প্রশংসনীয়। তবে ত্রাণ ও পুনর্বাসন প্রক্রিয়াও স্বচ্ছ হতে হবে। ইয়াস মোকাবিলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে নবান্নেও গিয়েছিলেন রাজ্যপাল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকও করেন তিনি।

সুতরাং কলাইকুণ্ডার বৈঠক হাইভোল্টেজ হতে চলেছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

আরও পড়ুন : উল্লেখযোগ্যভাবে নিম্নগামী সংক্রমণ,’সেরে উঠছে’ বাংলা

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest