Former minister Shyamaprasad Mukherjee has been arrested on charges of financial fraud of Rs 10 crore

১০ কোটি টাকা আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ, গ্রেফতার প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

তৃণমূলের (TMC) সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছেদ করে বিধানসভা ভোটের আগেই গেরুয়া শিবিরের পথে পা বাড়িয়েছিলেন বাঁকুড়া (Bankura) জেলার তৃণমূলের তৎকালীন সহ-সভাপতি তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। কিন্তু ভোটের সময় এগিয়ে আসতেই অচিরেই মোহভঙ্গ হয় তাঁর। একুশের ভোটে টিকিট না পেয়ে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে ফিরতে চেয়েছিলেন তিনি। কোটি টাকার বিনিময়ে টিকিট বিক্রি হয়েছে হলে বিস্ফোরক অভিযোগ করেন তিনি। কিন্তু তাতেও তাঁর তৃণমূলে ফেরা হয়নি। এবার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে গ্রেফতারই করা হল শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়কে।

জানা গিয়েছে, বিষ্ণুপুর পুরসভার আর্থিক তছরুপের মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁকে। বিভিন্ন প্রকল্পের ১০ কোটি টাকা তছরুপের অভিযোগ উঠেছে রাজ্যের এই প্রাক্তন মন্ত্রীর বিরুদ্ধে। মন্ত্রী থাকার পাশাপাশি বিষ্ণুপুর পুরসভার পুর প্রশাসকের দায়িত্বও সামলেছিলেন তিনি। সেই সময়ই বিভিন্ন প্রকল্পের টাকা তছরুপের অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। শনিবার রাতভর এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের পর তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। তবে গ্রেফতারি প্রসঙ্গে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় বললেন, “কেন গ্রেফতার করা হল, এখনও জানি না আমি।”

আরও পড়ুন: ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র ফর্ম বিলিকে কেন্দ্র করে হুলুস্থুল জেলায় জেলায়, বীরভূমে পদপিষ্ট ৭, রণক্ষেত্র বর্ধমান টাউনহল

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন তিনি তৃণমূল বিধায়ক ছিলেন। এবারে ভোটের আগে পালাবদলের মরশুমে শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। এই ঘটনায় অস্বস্তিতে বিজেপি। এ প্রসঙ্গে বর্তমান বিষ্ণুপুর পৌরসভার পৌর প্রশাসক অর্চিতা বিদ বলেন, “আমি আপনাদের মুখ থেকেই শুনলাম। কেন গ্রেফতার করা হয়েছে জানি না। এটা তো প্রশাসনের ব্যাপার। প্রশাসন তার নিজের পথেই হাঁটবে। এ ব্যাপারে আমার কিছু বলার নেই।”

অন্যদিকে প্রাক্তন মন্ত্রীর ছেলে শুভ মুখোপাধ্যায় বলেন, “আমি জানি না বাবাকে কেন গ্রেফতার করা হয়েছে। এখন এ ব্যাপারে আমার কিছু বলার নেই। আগে গোটা বিষয়টা বুঝতে হবে।” এখনও পর্যন্ত বিজেপি নেতৃত্বের তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। 

আরও পড়ুন: পৃথক উত্তরবঙ্গের দাবি, বার্লার পাশে বসে দলের অবস্থান স্পষ্ট করলেন দিলীপ ঘোষ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest