Jitendra mocks Anubrat as 'political entertainment', TMC leader calls him 'buffalo'

অনুব্রতকে ‘রাজনৈতিক বিনোদন’ বলে কটাক্ষ জিতেন্দ্রর, পালটা ‘মোষ’ বললেন তৃণমূল নেতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ফের কুরুচিকর ভাষায় বাকযুদ্ধে জড়ালেন বিজেপি (BJP) ও তৃণমূলের (TMC)দুই হেভিওয়েট নেতা। বুধবার সিউড়িতে জেলা কমিটি ঘোষণা করতে গিয়ে জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে ‘বিনোদনের পাত্র’ বলে কটাক্ষ করলেন গেরুয়া শিবিরের পর্যবেক্ষক জিতেন্দ্র তিওয়ারি। পালটা তাঁকে ‘মোষ’ বলে আক্রমণ শানালেন অনুব্রত।

বঙ্গ বিজেপিতে হাজারও গোলমালের মাঝে সাধারণতন্ত্র দিবসে একাধিক জেলা কমিটি বদলে নতুন তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। বীরভূম জেলা বিজেপির সভাপতি হিসেবে এখানকার জেলা কমিটি ঘোষণা করার জন্য সিউড়ি গিয়েছিলেন জিতেন্দ্র তিওয়ারি (Jitendra Tiwari)। সেখানে অনুব্রত মণ্ডল সম্পর্কে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে জবাবে তিনি বলেন, ”উনি কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নন, উনি রাজনীতির জগতে বিনোদনের পাত্র। আমরা যারা সিরিয়াসলি রাজনীতি করি, তারা দিনশেষে বাড়ি ফিরে বিনোদনের প্রয়োজন হলে তাঁর কথা শুনি।”

আরও পড়ুন: শিয়ালদহ বনগাঁ শাখায় ডাউন ট্রেন চলাচল বিপর্যস্ত, মেরামতির মধ্যেই চালু পরিষেবা

এখানেই আক্রমণে ইতি টানেননি জিতেন্দ্র। তাঁর আরও বক্তব্য, “তৃণমূল কংগ্রেসও জানে ওনার কোনও ফেসভ্যালু নেই। নির্বাচন যখন হয় তখন তাঁকে প্রার্থী করা হয় না। উনি রাজনৈতিক বিনোদনের কাজে লাগেন।বীরভূমকে রবীন্দ্রনাথের কর্মক্ষেত্র হিসাবে চিহ্নিত না করে অনুব্রতর জেলা হিসাবে বলা হচ্ছে। এটাই বিড়াম্বনার। এটাই লজ্জার। ”

জিতেন্দ্রর এহেন বক্তব্যকে প্রাথমিকভাবে গুরুত্ব দিতে চাননি বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। পরে অবশ্য তিনি বলেন, ”উনি তো মোষ। মোষের কথার আর কী জবাব দেব?  পান্ডবেশ্বরের একটি মোষকে হারিয়ে এসেছি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আমাকে রাজ্যসভার সদস্য করতে চেয়েছিলেন। আমি তা হতে চাইনি। আমি বিধায়ক বা পুরসভার কাউন্সিলরও হতে চাইনি।”

আরও পড়ুন: দিঘার হোটেলে বিধ্বংসী আগুন! প্রাণ বাঁচাতে কার্নিশে ঝাঁপ পর্যটকের, আটকে বহু

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest