North 24 Parganas: Alleged theft in gold shop by hypnotizing in Hridoypur

দিনেদুপুরে লক্ষাধিক টাকার সোনার গয়না ডাকাতি, হিপনোটাইজ করার দাবি দোকানদারের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

এবার দোকানদারকে সম্মোহন করে লক্ষাধিক টাকার সোনার গয়না চুরির (Robbery) অভিযোগ উঠল। ঘটনাটি ঘটেছে হৃদয়পুর স্টেশন (Hridaypur) সংলগ্ন একটি সোনার দোকানে। জানা যাচ্ছে, গ্রাহক সেজে দোকানে ঢুকে কথা বলার ফাঁকেই কায়দা করে দোকানদারকে সম্মাহন করে রাখে এক দুষ্কৃতী। এরপরই পাঁচ লক্ষেরও বেশি টাকার সোনার গয়না নিয়ে চম্পট দেয় সে। তেমনটাই দাবি করেছেন বিকাশ দত্ত নামে ওই ব্যবসায়ী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। গোটা ঘটনাটা ধরা পড়েছে সিসিটিভি ক্যামেরায়।

বিকাশ দত্ত নামে ওই ব্যবসায়ীর বয়ান অনুযায়ী, মাথায় হেলমেট পরে এক ব্যক্তি দুপুরে দোকানে ঢুকেছিলেন। প্রথমে মাদুলি, পরে লকেট, তারপর সোনার হার দেখতে চান । দোকানদার তা বার করে দেখান। কোথা থেকে সোনার জিনিস বার করা হচ্ছে, সেটা দেখে নেন গ্রাহক।

গ্রাহকের হাতে ছিল চুরুট । ব্যবসায়ীর কথা অনুযায়ী, চুরুটের ধোঁয়াতে তিনি বুঁদ হতে শুরু করেছিলেন। সেই সুযোগেই কথার জালে ফাঁসিয়ে দোকানের ক্যাশ কাউন্টারের নীচে সিন্দুক থেকে সোনার গয়নার বাক্স বার করে নেন ওই গ্রাহক। তার মধ্যে একাধিক চেন-সহ মূল্যবান সোনার গয়না ছিল।ব্যবসায়ী জানিয়েছেন, সেগুলো সবই অর্ডারের সামগ্রী ছিল। অন্য গ্রাহক থেকে অর্ডার নিয়ে বানিয়ে রেখেছিলেন দোকানদার । বার করে নিয়ে আসার পরও দোকানদার এতটাই বুঁদ হয়ে পড়েছিলেন যে তখনও ওই ব্যক্তির কথাতেই ভুলে তাঁকে জিনিস দেখিয়ে যাচ্ছেন। একটি লকেট পুনরায় মাপতে বলেন ওই ব্যক্তি।

সেই সুযোগে দোকান থেকে বেরিয়ে যান ওই ব্যক্তি । তিনি চলে যাওয়ার পর হুঁশ ফেরে ব্যবসায়ীর। কীভাবে এতক্ষণ হেলমেট পরেই কথা বলে গেলেন ওই ব্যক্তি! কেন তাঁকে হেলমেট খুলতে বললেন না একবারও? তাঁর নিজের মনেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করে।

যখন ব্যবসায়ীর সম্বিত ফেরে, ততক্ষণে তাঁর দোকান থেকে গায়ের কয়েক লক্ষ টাকার সামগ্রী। দ্রুত বাইরে বেড়িয়ে অন্য গাড়িতে ওই ব্যক্তিকে ধাওয়া করার চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু আর খুঁজে পাননি।তড়িঘড়ি দোকান বন্ধ করে বারাসত থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ওই ব্যক্তি। বারাসত থানার পুলিশ এখনও পর্যন্ত এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। সন্ধ্যার পর স্বর্ণ ব্যবসায়ী সমিতির দ্বারস্থ হন হৃদয়পুরের ব্যবসায়ী বিকাশ দত্ত।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest