আজ ফোকাস-এ

কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস, বইতে পারে ঝোড়ো হাওয়া

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

খাতায়-কলমে বাংলায় এখনও ঢোকেনি বর্ষা। কিন্তু তার আগে থেকএই ঝড়জল চলছেই রাজ্যে। নিম্নচাপের জেরে প্রায় রোজই ভাসছে রাজ্যের নানা প্রান্ত। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আর এই নিম্নচাপের জেরেই আজ শুক্রবার, ১১ থেকে ১৪ জুন অর্থাৎ একটানা চার দিন ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা রয়েছে রাজ্যে।

হাওয়া অফিস সূত্রে জানা যাচ্ছে, আজ দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, দুই বর্ধমান, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, নদিয়া, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, বাঁকুড়ায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টি হতে পারে। শনিবার দুই মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূমে ভারী বৃষ্টির সতর্কতা জারি করা হয়েছে। রবিবার পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমানে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টির সঙ্গে ঘণ্টায় ৩০-৪০ কিমি বেগে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে।

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস জারি করা হয়েছে। দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবার থেকে মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। ১৪ তারিখ পর্যন্ত মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।  যাঁরা ইতিমধ্যে সমুদ্রে মাছ ধরতে বেরিয়ে পড়েছেন তাঁদেরও দ্রুত ফিরে আসার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। জানা গেছে, মোহনায় জোয়ার আসে শুরু হয়ে গিয়েছে এখনই। ভারী বৃষ্টির জেরে নীচু এলাকায় জল জমতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: 356-র জুজু মানুষ ভালোভাবে নেবে না, রাজীবের পোস্টে বিতর্ক

উপকূলবর্তী দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বজ্রবিদ্যুৎ-সহ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনাও রয়েছে।ফলে স্বাভাবিক ভাবেই ভয়ে সিঁটিয়ে রয়েছেন এই জেলার বাসিন্দারা। কয়েকদিন আগেই ইয়াস ঘূর্ণিঝড়ের ফলে ব্যাপক ক্ষতি হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার। ভেঙে যায় একাধিক নদীবাঁধ। প্রশাসনের তরফে নদীবাঁধগুলি মেরামতির কাজও শুরু করে দেওয়া হয়েছে। এখনও বহু গ্রাম জলমগ্ন। ত্রাণ শিবিরে রয়েছেন বহু মানুষ। এখন ভরা কোটাল ঘিরে তাদের মধ্যে ফের উদ্বেগ বেড়েছে।

রাজ্যজুড়ে আগামী ৪৮ ঘণ্টা ঝড় এবং বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি চলবে। এই ঝড়জলের মধ্যেই বাংলায় প্রবেশ করবে বর্ষা। তবে রাজ্যের তাপমাত্রা এখনই খুব একটা কমার সম্ভাবনা নেই। গুমোট গরম থাকবেই।

আরও পড়ুন: সংসদে ‘অসত্য’ পরিচয় দিয়েছেন নুসরত, চাপে ফেলতে তৈরি হচ্ছে বিজেপি, দূরত্ব বাড়াচ্ছে তৃণমূল

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest