Second phase of Duare Sarkar and Lakshmi Bhandar Scheme will start from 16 August

ভাইফোঁটার দিন থেকে দুয়ারে সরকার রাজ্যে, জালিয়াতি রুখতে ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র ফর্মে থাকছে ইউনিক নম্বর

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

দুয়ারে সরকার প্রকল্পের দ্বিতীয় দফার আয়োজন শুরু করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। ভাইফোঁটার দিন থেকে রাজ্য জুড়ে শুরু হবে দ্বিতীয় দফার ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্প। ইতিমধ্যেই রাজ্যের ৯৯ শতাংশ মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পেয়েছেন, বৃহস্পতিবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে ‘লক্ষ্মীর ভান্ডার’ প্রকল্প নিয়েও বড় ঘোষণা করলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘রাজ্যের সব সংবাদমাধ্যমে দুয়ারে সরকারের দ্বিতীয় দফার বিজ্ঞাপণ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। আগামী সোমবার থেকে রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন জায়গায় চালু করা হবে শিবির। তা চলবে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। রাজ্য সরকারের ১৮টি প্রকল্পের সুবিধা পেতে ওই শিবিরে আবেদন করা যাবে। রাজ্যে এ রকম ১৭ হাজারের বেশি শিবির খোলা হবে সাধারণ মানুষের আবেদন খতিয়ে দেখার জন্য।’

সরকারি প্রকল্পের ফর্ম ফিল আপের জন্য নয়া নিয়মকানুন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এবার দুয়ারে সরকারে ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্পের জন্য আলাদা ক্যাম্প থাকছে। সেখান থেকে বিলি হবে ফর্ম। ফর্মে থাকবে ইউনিক নম্বর। সেই নম্বর নথিভুক্ত হবে সরকারের কাছে। আর এই নম্বর ছাড়া ফর্ম ফিল আপ করা যাবে না। এদিন সে কথা সাফ জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি জানান, বাইরে থেকে এই ফর্ম কেনা যাবে না। কোনও সংগঠন যাতে এই ফর্ম নিয়ে বাইরে অর্থের বিনিময়ে বিক্রি করতে না পারেন,তার জন্যই এই ব্যবস্থা।

আরও পড়ুন: মাস্টার প্ল্যান নিয়ে কেন্দ্র গুরুত্ব দেয়নি: ঘাটালের জলে দাঁড়িয়ে বললেন মমতা

এদিন মুখ্যমন্ত্রী আরও জানান, শুধু ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে’র ফর্ম নয়, কৃষক বন্ধু-স্বাস্থ্যসাথীর ফর্মেও থাকছে ইউনিক নম্বর। আর এ নিয়ে কারোর অভিযোগ থাকলে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দপ্তরের কাছে জানানো যাবে অভিযোগ। তার জন্য দু’টি নম্বর চালু করছে সরকার। নম্বর দু’টি হল-১০৭০/ ২২১৪-৩৫২৬।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের টাকা আবেদন করতে পারবেন না কারা, তাও জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, “যাঁরা সরকারি চাকরি করেন, পেনশন পান কিংবা ভাল বেসরকারি চাকরি করেন, তাঁরা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন না। অন্যরা মাসে ৫০০ এবং তফসিলি জাতি উপজাতি সম্প্রদায়ভুক্ত মহিলারা মাসিক ১ হাজার টাকা পাবেন।”

আরও পড়ুন: Muharram ছুটির দিন বদলাচ্ছে রাজ্যে, শীঘ্রই জারি হবে নতুন বিজ্ঞপ্তি

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest