The family worshiped their daughter as Lakshmi

Laxmi Puja: নিজের মেয়েকেই লক্ষ্মীরূপে পুজো করে সমাজকে বার্তা দম্পতির

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

কন্যাসন্তান মানেই অবহেলার পাত্রী নয়। বরং মেয়ে হল লক্ষ্মী (Lakshmi Puja)। পাড়াপড়শি-সহ সমাজকে এই বার্তা দিতে মাটির প্রতিমার বদলে নিজেদের মেয়েকেই চিন্ময়ী লক্ষ্মীরূপে পুজো করে নজির গড়লেন কৃষ্ণগঞ্জের বিশ্বাস দম্পতি।

ঘটনাটি কৃষ্ণগঞ্জ ব্লকের শ্যামনগর গ্রামের। মেয়েকে লক্ষ্মী রূপে পুজো করলেন পঞ্চায়েত অফিসার দম্পতি। ১০ বছরের নাবালিকাকে রীতিমতো লক্ষ্মীরূপে সাজিয়ে ব্রাহ্মণ ডেকে পুজো করলেন তাঁরা। মঙ্গলবার সন্ধে ৭টা নাগাদ অনন্য এই পুজোর সাক্ষী থাকল এলকাবাসী। সূত্রের খবর, কৃষ্ণগঞ্জের দুর্গাপুরের বাসিন্দা মিতালি বিশ্বাস। তিনি বনগাঁ গ্রাম পঞ্চায়েতের একজ়িকিউটিভ অফিসার ৷ অন্যদিকে, হিজুলি গ্রাম পঞ্চায়েতের একজ়িকিউটিভ অফিসার হলেন দেবাশীস বিশ্বাস। শ্যামনগরে দেবাশীস বাবুর সঙ্গে বিয়ে হয় মিতালিদেবীর। বর্তমানে পরিবারে রয়েছে বাবা অমল বিশ্বাস,মা চম্পা বিশ্বাস। মিতালিদেবী ও দেবাশীস বাবুর এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। মেয়ে দেবাদৃতাকেই গতকাল লক্ষ্মীরূপে পুজো করলেন তাঁরা।

বিশ্বাস  বাড়িতে এই অভিনব লক্ষ্মী আরাধনার সাক্ষী হতে ভিড় ভেঙে পড়ে। দশ বছরের মেয়েটির পরনে লাল শাড়ি, মাথায় মুকুট। পদ্ম, কলসি, বরাভয়মুদ্রায় গেরস্তবাড়ির আটপৌরে কন্যাই যেন জীবন্ত লক্ষ্মী। শাস্ত্র মেনে যথাবিহিত মন্ত্রপাঠ করে দেবীজ্ঞানে ওই মানবকন্যাকে পুজো করে পুরোহিত শ্যামল মুখোপাধ্যায়ও আপ্লুত। “অভাবনীয়। সত্যি, মেয়েরা তো মায়েরই জাত। তাই এখানে কুমারী মেয়েকে লক্ষ্মীরূপে পুজো করলাম, সম্পূর্ণ শাস্ত্রমতে”-প্রতিক্রিয়া শ্যামলবাবুর।

দেবাশিসবাবুর ব্যাখ্যা, সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে কন্যাসন্তানের প্রতি অবহেলা ও বৈষম্যমূলক আচরণ দেখা যাচ্ছে। তারই নিরিখে এটা তাঁদের একটা বার্তা। “আমরা মুখে বলি, বাড়ির মেয়ে আর বউ একই, বউও তো মেয়ে! অথচ হামেশাই দেখি, অন্যের মেয়েকে বাড়ির বউ করে এনে তাঁর উপর অত্যাচার চলছে, তাই ঠিক করলাম, নিজের মেয়েকেই লক্ষ্মীরূপে পুজো করব। দেখেও যদি কারও হুঁশ ফেরে।”

মিতালির কথায়, “মেয়েরা সমাজের বড় সম্পদ। আমার মেয়ে হওয়ার পর আমাদের সংসারের উন্নতি হয়েছে। তাই আমরা স্বামী-স্ত্রী মিলে সিদ্ধান্ত নিলাম, এ বছর মাটির প্রতিমা বাদ দিয়ে নিজের মেয়েকেই লক্ষ্মীরূপে পুজো করব। আমরা চাই, প্রতিটি মানুষ যেন নিজেদের কন্যাসন্তানকে মাতৃরূপে সম্মান করেন।”

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest