Rakesh Asthana May Take Rain As West Bengal Governor

বাংলার পরবর্তী রাজ্যপাল কি মোদী-শাহ ঘনিষ্ঠ রাকেশ আস্থানা? চর্চা তুঙ্গে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বাংলার নতুন রাজ্যপাল কি রাকেশ আস্থানা (Rakesh Asthana)? এমন জল্পনাই তুঙ্গে রয়েছে রাজধানীর অলিন্দে। সিবিআই-র এর প্রাক্তন স্পেশ্যাল ডিরেক্টর এবং সদ্য প্রাক্তন দিল্লি পুলিশের কমিশনার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-র (Amit Shah) অত্যন্ত পছন্দের ব্যক্তি। ফলে ধনকড়ের পরে কি বাংলার রাজ্যপাল পদে বসছেন আস্থানা, জোরাল হচ্ছে জল্পনা।

রাজ্য বিজেপি নেতাদের একাংশ দাবি করছেন, তাঁরাও আস্থানার নাম শুনেছেন তাই শুধু নয়, ঘরোয়া আলোচনায় অবসরপ্রাপ্ত ওই অফিসারের নাম তাঁরাও প্রস্তাব করেছেন। গত ৩১ জুলাই অবসর নেন মোদী-শাহের বিশেষ আস্থাভাজন গুজরাত ক্যাডারের ওই অফিসার। এক বছর এক্সটেনশনে ছিলেন তিনি। সেই জায়াগতে নতুন কমিশনারও নিয়োগের কাজও সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে। তারপর থেকেই আস্থানাকে রাজ্যপাল হিসেবে বাংলার পাঠানো হতে পারে এমন কথা শোনা গিয়েছে।

আরও পড়ুন: Earthquake: ভয়ঙ্কর ভূমিকম্প নেপালে, সকাল সকাল কেঁপে উঠল উত্তরবঙ্গ

বর্তমানে মণিপুরের রাজ্যপাল লা গণেশন বাংলার রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। খুব শীঘ্রই বাংলার জন্য স্থায়ী রাজ্যপাল পাঠাতে চাইছে কেন্দ্র। সেক্ষেত্রে মোদী সরকারের অত্যন্ত আস্থাভাজন এবং কড়া কোনও ব্যক্তিকেই কেন্দ্র সরকার পাঠাতে চাইছে এমন কথাও শোনা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, আস্থানা ১৯৮৪ ব্যাচের আইপিএস অফিসার। নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো বা NCB–র ডিজি হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্বেও তিনি রয়েছেন। ২০০২ সালে গোধরায় সবরমতী এক্সপ্রেসে অগ্নিকাণ্ডের মতো বেশি কয়েকটি হাই-প্রোফাইল মামলার দায়িত্বে ছিলেন আস্থানা। এছাড়া ১৯৯৭ সালে পশুখাদ্য কেলেঙ্কারিতে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদবকে গ্রেপ্তারও করেছিলেন। ফলে তিনি বাংলার রাজ্যপাল হয়ে এলে মোদী সরকারের অন্যতম প্রধান বিরোধী তৃণমূল সরকারের উপর যে চাপ বাড়বে তা বলাই বাহুল্য।

আরও পড়ুন: Thunderstorm Alert: ফুঁসছে নিম্নচাপ! ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, বইবে ঝোড়ো হাওয়াও

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest