করোনা-আক্রান্ত চিকিৎসকের সংস্পর্শে, কোয়ারেন্টাইনে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মর্কেল

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা ত্রাস। মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে হু হু করে। জার্মানিতে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা শিউরে ওঠার মতো। একই মধ্যে কোয়ারেন্টিনে গেলেন জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল। সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, মার্কেলের চিকিৎসকের সম্প্রতি করোনা ধরা পড়ে। তারপরই নিজেকে গৃহবন্দি রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি।জানা গেছে, কোয়ারেন্টিন থাকাকালীন নিয়মিত কোভিড-১৯ পরীক্ষা হবে তাঁর। বাড়ি থেকেই কাজ সামলাবেন মর্কেল।

জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার এক চিকিৎসক মর্কেলের সঙ্গে দেখা করেন। জার্মান চ্যান্সেলরকে অন্য একটি ভাইরাসের টিকা দিতে গিয়েছিলেন ওই চিকিৎসক। বেশ কিছুক্ষণ মর্কেলের সংস্পর্শে ছিলেন তিনি। পরে জানা যায় ওই চিকিৎসক নিজেই করোনায় আক্রান্ত। এরপরই জার্মান চ্যান্সেলর নিজেকে কোয়ারেন্টাইনে রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

আরও পড়ুন: করোনা আতঙ্কে ‘সেনসলেস’ সেনসেক্স, লাগাতার পতনের জেরে ‘লকডাউন’ শেয়ার বাজারও

জার্মান সরকারের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, আপাতত নিজেকে জনবিচ্ছিন্ন রেখেছেন মর্কেল। নিয়মিত তাঁর শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে। তাঁর শরীরে মারক ভাইরাস বাসা বেঁধেছে কিনা নিশ্চিত করতে কয়েকদিন সময় লাগবে। তবে এখনও পর্যন্ত করোনার কোনও উপসর্গ তাঁর শরীরে দেখা যায়নি। চিকিৎসকরা নিয়মিত পর্যবেক্ষণে রাখছেন তাঁকে। সরকারি কাজকর্ম বাড়ি থেকেই সারছেন চ্যান্সেলর।

এই মুহূর্তে করোনাভাইরাস ইউরোপে মহামারীর আকার নিয়েছে। ব্যতক্রম নয় ইউরোপের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ জার্মানিও। সেদেশে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামী দু’সপ্তাহ সমস্ত ধরনের জমায়েত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। প্রকাশ্য থানে একসঙ্গে দু-জনের বেশি থাকতে পারবে না বলে ঘোষণা করেছে সরকার। তবে পরিবার এবং চাকরি সংক্রান্ত প্রয়োজনে একসঙ্গে দু-জনের বেশি লোকের জমায়েতের ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: লিঙ্গ-বয়স ভুল! কণিকার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট নিয়ে প্রশ্ন গায়িকার পরিবারের

 

জার্মানিতে এখনও পর্যন্ত ২৩ হাজারের বেশি করোনাভাইরাস আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন কমপক্ষে ৯২ জন। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সমস্ত ধরনের চেষ্টা চালাচ্ছে সেদেশর সরকার।

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest