শেষ শ্রদ্ধা রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রী-মনমোহনের, লোদী রোড শ্মশানে শুরু প্রণবের শেষকৃত্য, দেখুন ভিডিয়ো

বরাবরই রাজনীতির উর্ধ্বে ছিলেন তিনি। বিভিন্ন দলের নেতানেত্রীদের সঙ্গে মধুর সম্পর্কও ছিল তাঁর। আর সেই প্রণব মুখোপাধ্যায়কে শেষ বিদায় জানানোর জন্য রাজনীতিকে দূরে সরিয়ে রেখে এগিয়ে এলেন বিভিন্ন দলের নেতানেত্রীরা।

নিজের ‘পথপ্রদর্শক’ প্রণববাবুকে শেষ শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। তাঁর ছবির সামনে পুষ্পস্তবক রেখে মাথা নীচু করে প্রণাম করেন প্রধানমন্ত্রী। পাশাপাশি উপ-রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধনরাও প্রণববাবুকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। প্রণববাবুকে শেষ শ্রদ্ধা জানান চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) জেনারেল বিপিন রাওয়াত, সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নারাভানে, বায়ুসেনা প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আর কে এস ভাদুরিয়া এবং নৌপ্রধান চিফ অ্যাডমিরাল করমবীর সিং।

মঙ্গলবার সকালে ন’টা নাগাদ দিল্লির সেনা হাসপাতাল থেকে প্রণববাবুর মরদেহ ১০, রাজাজি মার্গের বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রণববাবুর একটি ছবি রাখা হয়। সেই ছবিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি। পরে একটি টুইটবার্তায় রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে বলা হয়, ‘ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রয়াত শ্রী প্রণব মুখোপাধ্যায়কে নয়াদিল্লির ১০, রাজাজি মার্গের বাসভবনে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।’

প্রণববাবুকে শেষ শ্রদ্ধা জানান প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। যে প্রণববাবুকে ‘স্যার’ বলে ডাকতেন। শেষ বিদায় জানান প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদরা। কিন্তু কাউকেই মরদেহের কাছে যেতে দেওয়া হয়নি। প্রয়াত নেতার ছবিতে মালা দিয়েই সবাই শেষ শ্রদ্ধা জানান।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির শেষকৃত্যে এবার কিছু প্রটোকল বদল করা হচ্ছে। সাধারণত কোনও প্রায়াত রাষ্ট্র নেতার শেষকৃত্যে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় কামানবাহী শকটে। মৃতদেহ থাকে খোলা অবস্থায়। তবে কোভিড প্রটোকল মেনে প্রণববাবুর মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে শববাহী শকটে। তবে গান স্যালুট সহ পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাতেই হবে শেষকৃত্য।সেই উদ্দেশে ইতিমধ্যেই লোধী রোডের শ্মশানের উদ্দেশে রওনা দিয়েছে মরদেহ।

দেখুন ভিডিয়ো:

https://youtu.be/bo_PvXl0ewA