স্বাধীনতা দিবসে পতাকা উত্তোলন ঘিরে খানাকুলে তৃণমূলের সঙ্গে সংঘর্ষ, নিহত BJP কর্মী

আজ সকালে স্বাধীনতা দিবস স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে পতাকা উত্তোলনের সময় হুগলির খানাকুলের নতিবপুরে তৃণমূল–বিজেপি সঙ্ঘর্ষ হয়। চলে বোমাবাজিও। পুলিশের সঙ্গে ধ্বস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে BJP কর্মী ও সমর্থকরা । পাশাপাশি তৃণমূল ও BJP-র মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয় । দু’পক্ষের সংঘর্ষে সুদর্শন প্রামাণিক নামে এক BJP কর্মীর মৃত্যু হয় ।

আরও পড়ুন : প্রায় প্রস্তুত দেশের ৩টি করোনা ভ্যাকসিন, প্রত্যেক ভারতীয়কে করোনা টিকা দেওয়ার ‘রোডম্যাপ’ তৈরি, ঘোষণা মোদীর

এ ঘটনায় তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়েছে খানাকুলের দৌলতচক এলাকায়। এলাকায় তীব্র বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন বিজেপি কর্মী–সমর্থকরা।পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থানে পৌঁছায় পুলিশ ও ব়্যাফ । স্থানীয় মানুষজন পুলিশের গাড়ি ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায় । উত্তেজিত জনতা একটি কাঠের সাঁকোতে আগুন ধরিয়ে দেয় । মৃতের বাড়ি নতিবপুরে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে ।

BJP-র হুগলি জেলা সম্পাদক পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমরা হিন্দু জাগরণ মঞ্চের পক্ষ থেকে ৩০০ ফুটের জাতীয় পতাকা নিয়ে মিছিল করছিলাম । খাদিনা মোড়ে পতাকা উত্তোলনের পর শোভাযাত্রা বের হলে প্রশাসন তাতে বাধা দেয় ।”

 

এ ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি–র টুইটার হ্যান্ডেল থেকে এ ঘটনার নিন্দা করে টুইটও করা হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে খানাকুল থানার পুলিশ। এলাকায় উত্তেজনা রয়েছে‌।

BJP সাংসদ জ্যোতির্ময় মাহাত বলেন, “তৃণমূল কংগ্রেস ও রাজ্য প্রশাসনের কাছে এটা নতুন কিছু নয় । যারা যারা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত রয়েছে, তাদের আমি ছাড়ব না । তাদের গায়ে নুন-লঙ্কা মাখিয়ে ছাড়ব । পুলিশ ও প্রশাসন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপরাধীকে গ্রেপ্তার না করলে তার খেসারত দিতে হবে ।” এই ঘটনার নিন্দা করেছে রাজ্য BJP । যদিও ঘটনার কথা অস্বীকার করেছে শাসকদল । তৃণমূল জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব বলেন, “তৃণমূল কোনওভাবেই এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত নয় । BJP নিজেদের মধ্যে ঝামেলা করে এই ঘটনা ঘটিয়েছে । পুলিশ তদন্ত করছে । সত্য প্রমাণিত হবে ।”

আরও পড়ুন :স্বাধীনতা দিবসের আগের রাতে আচমকা ঘোষণা, ৪৮ জন পাইলটকে ছাঁটাই এয়ার ইন্ডিয়ার