সম্প্রতি গোমাংসের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি থেকে শুরু করে মদ বিক্রি সংক্রান্ত একাধিক বিতর্কিত বিধি প্রস্তাবিত করা হয়েছিল লাক্ষাদ্বীপের প্রশাসকের তরফে। সেই ঘোষণার পরই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল শান্ত এই দ্বীপপুঞ্জ। ৯৯ শতাংশ মুসলিম জনসংখ্যার এই দ্বীপগুলিতে সব অ-বিজেপি দলগুলি সংঘবদ্ধ হয়। এমনকী এই কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের বিজেপি নেতাও এই প্রস্তাবিত আইনের বিরুদ্ধে মুখ খোলেন। এই আবহে এবার এই বিতর্কিত আইনগুলি লাগু করার বিষয়ে ব্রেক কষতে চলেছে কেন্দ্র। এমনই দাবি করলেন লাক্ষাদ্বীপের সাংসদ তথা এনসিপি নেতা মহম্মদ ফৈজাল।

আরও পড়ুন : OMG! রোগীর পেটের ভিতর সোনার খনি! দেখেই চক্ষু চড়কগাছ চিকিৎসকদের

লাক্ষাদ্বীপের নয়া আইনগুলি নিয়ে সোমবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে দেখা করেন সাংসদ মহম্মদ ফৈজাল। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের ফৈজাল বলেন, ‘যেই আইনগুলি লাগু করার বিষয়ে চিন্তা ভাবনা চলছে, সেগুলি লাক্ষাদ্বীপে পাঠানো হবে আলোচনার জন্য। স্থানীয় প্রতিনিধি এবং পঞ্চায়েত সদস্যদের সঙ্গে আলোচনার পরই তা চূড়ান্ত করা হবে। চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে লাক্ষাদ্বীপের মানুষের সঙ্গে আলোচনা করা হবে।’

গতবছরের ডিসেম্বরে বিজেপি নেতা প্রফুল প্যাটেলকে লক্ষদ্বীপের প্রশাসক হিসেবে নিযুক্ত করা হয়েছিল। সেই প্রফুল প্যাটেল সম্প্রতি ঘোষণা করেন, লাক্ষাদ্বীপে এবার থেকে বিক্রি হবে মদ। খাওয়া যাবে না গরুর মাংস। গরু খাওয়া নিষিদ্ধ এবং মদ বিক্রির এই সিদ্ধান্ত মুসলিম অধ্যুষিত লাক্ষাদ্বীপের মানুষ ভালো চোখে দেখছেন না। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে কেরলের সিপিএম-কংগ্রেস একযোগে প্রতিবাদ জানিয়েছে।

আরও পড়ুন : আর জল্পনা নয়, যশের সঙ্গে সম্পর্কে স্বীকৃতি দিলেন নুসরত নিজেই!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *