জাতির উদ্দেশে ভাষণ প্রধানমন্ত্রীর, দেখুন Live…

নয়াদিল্লি: ১৭ মে শেষ হচ্ছে তৃতীয় দফার লকডাউনের মেয়াদ। তার আগে জাতির উদ্দেশে ভাষণ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর।

 ১৭ মে-র পরে কোন ক্ষেত্রে কতটা ছাড় দেওয়া হবে বা কোথায় নিয়ন্ত্রণ জারি থাকবে, তার একটা আগাম আভাস প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে থাকতে পারে বলে পর্যবেক্ষকদের একাংশ মনে করছেন। আবার পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরা, যাত্রিবাহী ট্রেন চলাচল শুরু নিয়েও নানা রকম প্রতিক্রিয়া বিভিন্ন মহলে। সে বিষয়েও মোদী বার্তা দিতে পারেন বলে একাংশের মত।বেহাল অর্থনীতির চাকা কী ভাবে সচল করা যায়, তা নিয়ে পরিকল্পনার কথা থাকতে পারে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে। 

আরও পড়ুন: রেড জোনকে তিন ভাগে ভেঙে দোকান খোলার রাজ্য সরকারের, জানালেন মমতা

সোমবারই মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যগুলির মতামত জেনেছেন মোদী। এর পর রাজ্যগুলিকে লিখিত আকারে ১৫ মে-র মধ্যে নিজেদের মতামত পাঠাতে বলা হয়েছে। পর্যবেক্ষকদের একাংশের মতে, তার আগে লকডাউনের বিষয় নিয়ে স্পষ্ট বার্তা নাও দিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী। তবে একাধিক ইঙ্গিত থাকতে পারে তাঁর কথায়। 

রাজ্যে রাজ্যে আটকে পড়া শ্রমিকরা ঘরে ফিরতে শুরু করেছেন কয়েক দিন আগে থেকেই। ট্রেনে, বাসে, হেঁটে, সাইকেলে, লরি-গাড়ি ভাড়া করে দেশের রাস্তায় রাস্তায় শ্রমিকদের ঢল। কিন্তু এই পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরলে নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে পারে, এমন আশঙ্কা রয়েছে। সেই আশঙ্কার কথা মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকেও উল্লেখ করে মোদী বলেছিলেন, ‘‘এটা ঠিক যে, এই ঘটনায় (পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরা) নতুন করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে পারে। কিন্তু এটা দেশকে করোনামুক্ত করতে সাহায্য করবে।’’  সে ক্ষেত্রে পরিযায়ী শ্রমিকরা রাজ্যে ফেরার পর রাজ্যগুলির কী করণীয়, সে বিষয়ে বার্তা দিতে পারেন প্রধামন্ত্রী। পাশাপাশি এই শ্রমিক শ্রেণির কর্মসংস্থানের বিষয়েও বার্তা থাকতে পারে মোদীর কথায়। 

দেখুন Live:

আরও পড়ুন: করোনা সংকটের মধ্যে স্বাস্থ্য সচিব বদলি রাজ্যের, নেপথ্যে কি সেই চিঠি ?

Gmail 1