ঘূর্ণিঝড় ইয়াস বিধস্ত এলাকায় ত্রাণ পৌঁছে দেবেন তাঁর ও নীল ভট্টাচার্যের তৈরি এনজিও, শনিবার সে খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছিলেন তৃণা। সঙ্গে অভিনেত্রীর শেয়ার করা পোস্টে লেখা ছিল শাসক দলের সঙ্গে হাত মিলিয়েই তাঁরা এই কাজ করবেন। তারপর থেকেই সামনে আসতে থাকে বিধানসভা উপনির্বাচনে তৃণার অংশ নেওয়ার খবর। জানা যায়, খড়দহ কেন্দ্র থেকে শাসকদলের প্রার্থী হিসেবে মনোনীত হয়েছেন অভিনেত্রী তৃণা সাহা।

২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে স্বামী নীল ভট্টাচার্যকে নিয়ে তৃণা যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে। এর পরেই উপনির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে তৃণার নাম উঠে আসায় খুশি টেলিপাড়া। যদিও আনন্দবাজার ডিজিটালকে অভিনেত্রী বললেন, “আমিও এই খবর শুনেছি। তবে শাসকদলের থেকে এ রকম কোনও প্রস্তাব এখনও আমার কাছে আসেনি।” তৃণা জানান, প্রেম থেকে বিয়ে এবং রাজনীতি, সবটাই তাঁরা করেছেন সংবাদমাধ্যমকে সামনে রেখে। আগামী দিনে সত্যিই এ রকম কিছু ঘটলে আবার খবর পাবে সংবাদমাধ্যম।

আরও পড়ুন: সুন্দরী সংযুক্তা নয়! মোটা ফ্রেমের চশমা পরে র‍্যাম্প মাতালো নিরুপমাই

প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে যোগদানের আগেই থেকেই শাসকদলের সমর্থক নীল-তৃণা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একাধিক সমাবেশে দেখা গিয়েছে তাঁদের। নীল-তৃণার বিয়েতে তাঁদের আশীর্বাদ করতে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। টেলিপাড়া সূত্রে খবর, মদন মিত্রের খুবই ঘনিষ্ঠ তারকা দম্পতি। প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার পরে চলতি বছরের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারে অংশ নিতে দেখা গিয়েছে তাঁদের। মদন মিত্রের হয়েও প্রচার করেছেন তাঁরা।

স্ত্রী-র প্রার্থী হওয়ার গুঞ্জনে কী প্রতিক্রিয়া নীলের? নীলও এই খবর গুঞ্জন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। অভিনেতা জানিয়েছেন, “সদ্য প্রত্যক্ষ রাজনীতিতে যোগ দিয়েছি আমরা। এখন প্রার্থী হওয়া নিয়ে কিচ্ছু ভাবছি না।”  অবশ্য ২০২১ বিধানসভা ভোটের ইতিহাস অনুযায়ী অনেক তারকাই তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য হওয়ার পরপরই ভোটের টিকিট পেয়েছে। তাই বাংলা ধারাবাহিকের জনপ্রিয় মুখ তৃণা সাহার ক্ষেত্রেও এমনটা হলে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

আরও পড়ুন: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ‘ধর্ষণ’ ও প্রতারণার অভিযোগে গ্রেপ্তার কঙ্গনার দেহরক্ষী

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *