ইমরান হাশমিকেও টেক্কা দিতে পারবেন! জেনে নিন ভালো চুমু খাওয়ার ট্রিকস

মনে রাখা উচিত চুমু খাওয়া একটা শিল্প৷ যিনি যত ভাল চুমু খান তিনি তত বেশি আকর্ষণীয়৷
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আম জনতার কাছে ভালবাসা মানে মন থেকে শুরু করে শরীর সবই৷ভালবাসার মানুষটি যেমন হৃদয় জুড়ে থাকে তেমন তাঁকে নিজের শরীরে মিশিয়ে নিতেও চান প্রেমিক বা প্রেমিকা৷ প্রেম, আদর কিংবা যৌনতা – সবকিছুর ক্ষেত্রেই ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ চুম্বন৷ চুম্বন প্রেমিকযুগলের সম্পর্ককে কেবল মজবুতই করে না, যৌনতাকে আরও আকর্ষনীয় করে তোলে৷

কিন্তু চুমু কি আর যেমন তেমন করে খাওয়া যায়? নাকি যেমন তেমন চুমু খেলে মন ভরে? মনে রাখা উচিত চুমু খাওয়া একটা শিল্প৷ যিনি যত ভাল চুমু খান তিনি তত বেশি আকর্ষণীয়৷ প্রশ্ন জাগে ভাল চুমু খাওয়া যায় কী ভাবে?

রইল কিছু ভাল চুমু খাওয়ার টিপসঃ

কন্ট্রোল

ভাল চুমু খাওয়ার ক্ষেত্রে সবার প্রথমে যেই জিনিসটি রপ্ত করতে হবে, তা হল কন্ট্রোল৷ সংযত থেকে চুমু খান| বেশি উত্তেজিত হয়ে চুমু খেতে গেলে হিতে বিপরীত হতে পারে৷ তাই সংযত হয়ে চুমু খান৷

ঠোঁটের খেলা

চুমু পুরোপুরি ঠোঁটের খেলা৷ শরীর, সৌন্দর্য – এসবের বাইরে গিয়েও ঠোঁটের সঠিক ওঠানামাই চুমুকে পরিপূর্ণতা দান করে৷ তাই চুমু খাওয়ার সময় ঠোঁটের খেলায় নজর দিন৷

প্র্যাকটিস

প্র্যাকটিসই সবকিছুকে পারফেক্ট করে তোলে৷ চুমু খাওয়ার ক্ষেত্রেও সেই এক কথাই প্রযোজ্য৷ প্রথমবার চুমু খেতে গেলে যে সমস্যা হবে, পঞ্চমবার সেই সমস্যা হবে না৷ নিজের চুমু খাওয়াকে শিল্পজ্ঞানে দেখলেই আরও রোমান্টিকভাবে পার্টনারকে চুমু খাওয়ার ইচ্ছে জাগবে আপনার৷ তাই প্রথম চুম্বনে পুরো ব্যাপারটা মনের মতো না হলেও আশাহত হবেন না| প্র্যাকটিস করে যান৷ কোন না কোন দিন ইমরান হাশমিকেও টেক্কা দিতে পারবেন!

রোমান্টিক হোন

ঠোঁটের খেলা কিংবা শ্বাসের ওঠাপড়া এই বিষয়গুলিকে নিয়ে অতিরিক্ত ভেবে চুমু খেতে গিয়ে যদি নিজের রোমান্টিসিজম হারিয়ে ফেলেন, তবে কিন্তু মুশকিল হবে৷ তাই চুমু খাওয়ার সময় নিজের প্রেমকে জাগিয়ে রাখুন| ভালবাসা থাকলেই ভালবাসার মানুষকে আদর করার ইচ্ছে আরও তীব্র হবে৷

আরও পড়ুন: কোন বয়সে যৌনসুখ সবচেয়ে বেশি উপভোগ করে থাকেন মহিলারা?

হিংস্র হবেন না

চুমু খাওয়া বা লিপলক মানেই ঠোঁটে কামড়ে দেওয়া নয়৷ হিংস্রতা রাফ সেক্সের প্রধান অংশ৷ এই ভেবে উত্তেজনার বশে মনের মানুষটিকে আঘাত করে বসলে কখনই নিজেকে ভাল ‘কিসার’ প্রতিপন্ন করতে পারবেন না| উল্টে আপনার হিংস্র মনোভাবই প্রকাশ পাবে৷

সঠিক ভাবে শ্বাস নিন 

চুম্বনের সময় শ্বাস প্রশ্বাসের ক্ষেত্রে সচেতন থাকুন৷  ঠিক সময় স্বাস নিন এবং ঠিক সময় স্বাস ছাড়ুন| চুমু খাওয়ার সময় পার্টনার যাতে একইভাবে ঠিক করে স্বাস নিতে পারে সেদিকেও নজর রাখুন৷ লম্বা একটানা চুমু খাওয়ার সময় মাঝে মধ্যে ভালবাসার কথা বলুন| এতে আদরের উত্তেজনা আরও বাড়ে৷

জিভের খেলা

লিপলকের সময় জিভের একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ থাকে৷ জিভের ঠিকঠাক ওঠানামা চুমুকে পারফেক্ট করে| তাই চুমুর খেলার সময় জিভের খেলাটাও একটু বুদ্ধি করে খেলুন৷

আরও পড়ুন: শারীরিক সম্পর্কের সময় ও পরে যে সমস্যাগুলির সম্মুখীন হন মেয়েরা…

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest